সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ০১:১৯ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
মজুদদারির বিরুদ্ধে ডিসিদের কঠোর হওয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর ওবায়দুল কাদের স্মৃতিভ্রংশ রোগে ভুগছেন সংবাদ সম্মেলনে রিজভী স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য যুক্তরাজ্যে গেলেন রাষ্ট্রপতি সাগরদাঁড়ী ৩ তলা বিশিষ্ট আধুনিক ডাকবাংলো নির্মাণের কাজের উদ্বোধন গুনাকরকাটি দরবার শরীফে মাওলানা মুহাম্মাদ আবদুর রহীম নকশবন্দী মোজাদ্দেদী (রহঃ) এর ফাতেহা শরীফ শুরু আজ যুব স্বেচ্ছাসেবী সমন্বয় কমিটি গঠন দ্রুত বিচার আইন স্থায়ী করতে সংসদে উত্থাপিত বিলটি পাসের সুপারিশ সংসদীয় কমিটির আশাশুনির সুন্দরবনী দরবারে ৩৩ তম বার্ষিক উরস আজ পাইকাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এডভোকেসি সভা অনুষ্ঠিত আশাশুনির গোবিন্দপুরে ওয়াজ মাহফিল অনুষ্ঠিত

অবশেষে ইসরাইল গাজায় যুদ্ধ বিরতি কর্যকর করলো

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • আপডেট সময় শনিবার, ২৫ নভেম্বর, ২০২৩

হামাস ইসরাইল বন্দী বিনিময় চুক্তি কার্যকর ঃ তের ইসরাইলী ও পঞ্চাশ ফিলিস্তীনি মুক্ত ঃ শেষ মুহুর্তের হামলায় তিন শতাধিক ফিলিস্তীনি নিহত ঃ স্কুল ও শরনার্থী শিবিরে হামলা
ফিলিস্তীনিদের শঙ্কা ইসরাইল যুদ্ধ বিরতি ভঙ্গ করতে পারে ঃ হামলা করছে হিজবুল্লাহ ঃ স্থায়ী যুদ্ধ বিরতির দাবী শান্তিকামী মানুষের
দৃষ্টিপাত ডেস্ক ॥ অবশেষে দখলদার ইসরাইলি বাহিনী গাজায় যুদ্ধ বিরতি শুরু করেছে। গতকাল সকাল সাতটা হতে চারদিনের যুদ্ধ বিরতিতে ইসরাইলের কারাগারে আটক পঞ্চাশ ফিলিস্তীনিকে ইসরাইল সরকার মুক্তি দেবে অন্য দিকে হামাসের হাতে আটক তের ইসরাইলী নাগরিকদেরকে মুক্তি দেবে হামাস যোদ্ধারা। বৃহস্পতিবার হামাস ও ইসরাইলের মধ্যে যুদ্ধ বিরতির কথা তখাতলেও ইসরাইল গতকাল যুদ্ধ বিরতির বিষয়টি নিশ্চিত করে এর পূর্বে বুধ ও বৃহস্পতিবার দখলদার বাহিনী বর্বরতা প্রদর্শন করে গাজায়। যে মুহুর্তে ফিলিস্তীনিরা যুদ্ধ বিরতি আর বন্দী বিনিময় আসন্ন এমন ভাবনায় আচ্ছন্ন সেই সময়গুলোতে বর্বর ইসরাইলের গাজায় ইতিহাসের নিকৃষ্টতম গণহত্যা পরিচালনা করে উক্ত হামলায় নতুন ভাবে নিহতের সংখ্যা দাঁড়ায় পঞ্চাশ জনের। বর্বর বাহিনীর সদস্যরা বৃহস্পতিবার জাতিসংঘ পরিচালিত একটি স্কুলে বিমান হামলা পরিচালনা করে ব্যাপক ভিত্তিক হতাহতের ঘটনা ঘটায়। ইসরাইলি বাহিনীর অনুমান নির্ভর ধারনা যে জাতিসংঘ পরিচালিত উক্ত স্কুলে হামাস সদস্যরা অবস্থান করছে আর এ কারনে ভুল নিশানায় তারা বিদ্যালয়ে হামলা পরিচালনা করেছে। একই দিনে দখলদার বাহিনী আল জাবার শরনার্থী শিবিরে বিমান হামলা পরিচালনা করে। মার্কিন সহ পশ্চিমা বিশ্ব বিরতির প্রস্তাব কার্যকর হওয়ায় স্বস্তি প্রকাশ করেছে। উল্লেখ্য পশ্চিমা বিশ্ব ইসরাইলের হামলাকে সমর্থন জুগিয়ে চলার পাশাপাশি সমর্থন ব্যক্ত করে আসছিল। বৃহস্পতিবার ইসরাইলের বিমান বাহিনীর বিমানগুলো যখন গাজার ভূ-খন্ডে বিমান হামলা পরিচালনা করছিল তখন হিজবুল্লাহ গেরিলারা ইসরাইলের ভূ-খন্ডে ব্যাপক ভিত্তিক ক্ষেপনাস্ত্র হামলা চালাচ্ছিলো। সপ্তাহ ব্যাপী হিজবুল্লাহ ইসরাইলের অভ্যন্তরে হামলা চালিয়ে দৃশ্যতঃ ইসরাইলের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাকে ভিন্ন করে চলেছে। ইসরাইলিদের বর্তমান সময়ের আতঙ্ক হামাসের পাশাপাশি হিজবুল্লাহ যোদ্ধা। বারশত কিলোমিটারের দুরের দেশ ইয়েমেন হতে হুযি বিদ্রোহীরা ইসরাইলের অভ্যন্তরে একের পর এক ক্ষেপনাস্ত্র হামলা পরিচালনা করছে। হামাস, হিজবুল্লাহ আর হুযি বিদ্রোহীদের একের পর এক হামলায় বিপর্যস্থ ইসরাইলরা। দেশটির অধিবাসিদের বৃহৎ অংশ বর্তমান সময় গুলোতে চরম আতঙ্কজনক পরিস্থিতি দিন যাপন করছে। এক শ্রেনির ইসরাইলীরা ইসরাইল ত্যাগ করে বিশ্বের অন্যকোন দেশে যেয়ে বসবাসের ভাবনা করছে। ইতিমধ্যে গত অক্টোবর হামাস কর্তৃক ইসরাইলের অভ্যন্তরে হামলার পর যে সকল ইহুদীরা ইসরাইল ছেড়ে বিমান বা অন্যকোন মাধ্যমে দেশ ছেড়েছে তারা এখনও ইসরাইলে ফিরিনি। ইসরাইল গত আটচল্লিশ দিন যাবৎ ফিলিস্তীনিদের উপর নির্মমতা আর গণহত্যা চালিয়ে আসছে ইসরাইলের জাতীয় পত্রিকাগুলোর খবরে বলা হয়েছে ইসরাইল রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার পর থেকে দেশটি কয়েকবার যুদ্ধে জড়িয়ে পড়লেও এই প্রথম অত্যন্ত ব্যয় বহুল যুদ্ধে জড়ালো ইসরাইল। ইসরাইল এবং হামাস যুদ্ধের সময় গুলোতে উল্লেখিত নাম দুটির বাইরে যে নামটি ব্যাপক ভাবে আলোচনায় তা হলো কাতার। মরুভূমির দেশটির মধ্যস্থতায় ইসরাইল ও হামাসের মধ্যে যুদ্ধ বিরতি ও বন্দী চুক্তি সম্পন্ন হয়েছে। গতকাল বিকাল চারটার দিকে উভয়ই স্ব স্ব বন্দীদের মুক্তি ও ফেরত পান। আগামী চারদিন পর্যন্ত যুদ্ধ বিরতি অব্যাহত থাকবে। এই সময় গুলোতে কোন পক্ষই হামলা করতে পারবে না। এদিকে গতকাল সকাল সাতটায় যুদ্ধ বিরতির প্রস্তাব পাশ হওয়ার পরপরই মিশর সহ অপরাপর সীমান্ত দিয়ে গাজায় হুহু করে ত্রান বাহী ট্রাক সহ যানবাহন গুলোর অনুপ্রবেশ বেড়েছে। খাদ্য সংকটে থাকা ফিলিস্তীনিরা ত্রান সংগ্রহ করছে এবং সুপেয় পানির অভাব মিটাচ্ছে। বর্বর ইসরাইল কেবল বর্বরতাই তাদের উদ্দেশ্য আর তাই গতকাল যুদ্ধ বিরতির পূর্ব মুহুর্তে তিনশতাধীক নিরীহ ফিলিস্তীনিকে তারা হত্যা করেছে। গতকাল গাজায় যুদ্ধ বিরতি শুরু হওয়ার পর থেকে সাধারন ফিলিস্তীনিদের মাঝে আনন্দ উৎসব শুরু হয়েছে তবে ফিলিস্তীনিদের মাঝে শঙ্কাও কম নেই, কারন ইসরাইল চরিত্রগত ভাবে দখলদার এবং চুক্তি ভঙ্গকারী বিধায় যে কোন অজুহাতে তারা যুদ্ধ বিরতি শর্ত ভেঙ্গে হামলা চালাতে পারে। বিশ্বের অত্যন্ত নিকৃষ্ট জাতি হিসেবে ইহুদীদের বিকল্প নেই আর শঙ্কা সেখানেই। বিশ্ব নেতৃবৃন্দ এবার সচেষ্ট হোক স্থায়ী যুদ্ধবিরতির পক্ষে। আগামী দিন গুলোতে ফিলিস্তীনিরা নিরাপদ থাকুক। দখলদার আর বর্বর ইসরাইলি বাহিনী যেন মানবতাকে নিশ্চিহৃ করতে না পারে সে বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহন করুন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2013-2022 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com