মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৯:০৬ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
আজ পবিত্র শবে বরাত স্বাধীন বিচার বিভাগ ও শক্তিশালী সংসদ দেশকে উন্নয়নের পথে এগিয়ে নিতে পারে: প্রধানমন্ত্রী আখেরী মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হলো ৭৬তম আজিজিয়া ইছালে সওয়াব মাহফিল কুল্যায় উপজেলা চেয়ারম্যান মোস্তাকিমের নির্বাচনী সভা প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশ সকল ক্ষেত্রে এগিয়ে যাচ্ছে -সেখ সালাহউদ্দিন রামভদ্রপুর মোকসেদ আলী মন্ডল হাফিজিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানায়, তাফসীরুল কুরআন মাহফিল ভাদিয়ালী হাইস্কুলের পক্ষ থেকে এমপি ফিরোজ আহমেদ স্বপনকে সংবর্ধনা উপানুষ্ঠানিক ব্যুরোর সহকারী পরিচালকের দায়িত্ব পেলেন সাতক্ষীরা জেলা সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আবু হেনা মোস্তফা কামাল প্রতি মুহুর্তে মৃত্যুর মুখে ফিলিস্তিনিরা প্রাইম ব্যাংক জাতীয় স্কুল ক্রিকেট ২০২৩-২৪ এর খেলায় সাতক্ষীরা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় ৩৭ রানে জয়ী

আশাশুনিতে অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের প্রেস ব্রিফিং-

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ৩০ নভেম্বর, ২০২৩

এম এম নুর আলম ॥ বাড়িতে চেতনা নাশক ব্যবহার করে চুরি চক্রের এক সদস্যকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। বুধবার বিকালে আশাশুনি থানায় আয়োজিত প্রেস ব্রিফিং এ সহকারী পুলিশ সুপার (দেবহাটা সার্কেল) এস এম জামিল আহমেদ এ তথ্য জানান। প্রেস ব্রিফিংকালে সহকারী পুলিশ সুপার জানান, বিগত ৬/৭ মাস জেলার বিভিন্ন এলাকায় বাড়িতে চেতনা নাশক ব্যবহারের মাধ্যমে বাড়ির লোকজনকে অচেতন করে মালামাল চুরির ঘটনা ঘটে আসছে। সাতক্ষীরা পুলিশ সুপার স্যারের নির্দেশে একাজের সাথে জড়িত চক্রটি চিহ্নিত ও আটক করতে আমরা কাজ করে আসছি। এরই অংশ হিসাবে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দেবহাটা থানার শিমুলিয়া গ্রামে অভিযান পরিচালনা করে আশাশুনি থানার বসুখালী গ্রামের মৃতঃ নজরুল ইসলাম গাজীর পুত্র চক্রের সদস্য আঃ রাজ্জাক গাজী (৩৪) কে গ্রেফতার করা হয়েছে। সে প্রায় ২০ বছর যাবৎ শিমুলিয়া গ্রামে নানার বাড়িতে বসবাস করে। সে স্বীকার করেছে যে, আশাশুনি থানা মামলা নং ১৫ তাং ১৭/১১/২৩ ধারা ৩২৮/৪৫৭/৩৮০ পেনাল কোড মামলার বাদী গুনাকরকাটি গ্রামের সেফাতুল্লাহর বাড়িতে চেতনানাশক ব্যবহারে সকলকে অচেতন করে মালামার চুরি চক্রের সদস্য, চুরির সাথে জড়িত। তার বাড়ি থেকে চোরাই মারামালের মধ্যে একজোড়া স্বর্ণের দুল ও একটি স্বর্ণের আংটি উদ্ধার করা হয়েছে। যার আনুমানিক ওজন সাত আনা। তিনি আরও জানান, এই চক্রের ১০/১২ জনের সিন্টিকেড রয়েছে। তারা চোরাই মালামার স্বর্ণের দোকানে বিক্রয় করে থাকে। ঘটনার দিন সে মোটর সাইকেলে করে সাথী চোরকে সেখানে নামিয়ে দিয়েছিল এবং কাজ শেষে চোরাই মালামালসহ সাথী চোরকে নিয়ে গিয়েছিল। উদ্ধারকৃত মালামাল বাদী শনাক্ত করেছেন। আটককৃতকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে চক্রের অন্য সদস্যদের আটক করে আইনের আশ্রয় নেয়া হবে ও মালামাল উদ্ধারে পুলিশ তৎপর রয়েছে বলে তিনি জানান। এসময় আশাশুনি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বিশ্বজিৎ কুমার অধিকারী জানান, চুরির ঘটনা থেকে রক্ষা পেতে সকলকে সচেতন হওয়া দরকার। গুনাকরকাটিতে বাইরে রান্না করে গ্রীলের মধ্যে রাখলেও সেখানে বাইরে থেকে কিছু মেশানো সহজ ছিল। রাতে বাদীর সন্তান, পিতা-মাতা-স্ত্রী আগে খাওয়া দাওয়া করে অচেতন হয়ে গেলে বাদী স্থানীয় ডাক্তার ডেকে দেখায়, কিন্তু তেমন কিছু উপলব্ধি না করে পরে বাদী নিজেও ঐ খাদ্য খেয়ে অচেতন হয়ে গেলে চোরেরা চুরি করতে সক্ষম হয়। তিনি সকলকে খাদ্য দ্রব্য নিরাপদে রাখা, দরজা জানালা খোলা না রাখতে পরামর্শ প্রদান করেন। তিনি বলেন, চুরি করে কেউ পার পাবেনা, চোর ধরেছি, বাকীদের ধরতে সক্ষম হবেন বলে তিনি আশা ব্যক্ত করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2013-2022 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com