মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই ২০২২, ০৪:১৩ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::

ইমরানের ভাগ্য নির্ধারণ কাল

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • আপডেট সময় শনিবার, ২ এপ্রিল, ২০২২

এফএনএস : পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের রাজনৈতিক ভবিষ্যত আরও অন্ধকারে। রবিবার জাতীয় পরিষদে অনাস্থা ভোট সামনে রেখে দেশটির বিরোধী শিবির ইতোমধ্যে পরবর্তী প্রধানমন্ত্রীর নাম ঘোষণা করেছে। পিপিপি নেতা বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারি শুক্রবার বলেন, পার্লামেন্টে ইমরান খান ধরাশায়ী হবেন। এপদে আমরা মুসলিম লীগ-এন নেতা শাহবাজ শরীফের প্রতি সমর্থন জানাব। তবে ইমরান খান শেষ পর্যন্ত লড়াই করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছেন। তিনি বলেন, আমি শেষ পর্যন্ত ক্রিজে থাকব। খবর পিটিআই, ডন ও বিবিসি অনলাইনের। ইমরান খানের সাবেক স্ত্রীও বর্তমান পরিস্থিতিতে এই পাক তারকা খেলোয়াড়ের সমালোচনা করেছেন। শুক্রবার এক টুইট বার্তায় রেহাম খান বলেন, হ্যাঁ, আপনি প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। তবে আপনি যখন প্রধানমন্ত্রী ছিলেন না, তখন পাকিস্তান মহান ছিল। এদিকে কূটনৈতিক শিষ্টাচারবহির্ভূত ভাষায় চিঠি দিয়ে ‘হুমকি’ দেয়ার অভিযোগে ইসলামাবাদে নিযুক্ত মার্কিন মিশনের ভারপ্রাপ্ত উপপ্রধানকে তলব করে কড়া ভাষায় এর প্রতিবাদ জানিয়েছে ইসলামাবাদ। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের চিঠির বিষয়ে বৃহস্পতিবার পাক ন্যাশনাল সিকিউরিটি কমিটির (এনএসসি) বৈঠক হয়। এ বৈঠকে হুমকির চিঠির বিষয়ে কূটনৈতিকভাবে কড়া প্রতিবাদ জানানোর সিদ্ধান্ত হয়। সেই সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পদক্ষেপ নিল ইসলামাবাদ। ইসলামাবাদের মার্কিন কূটনীতিককে তলব করে কড়া প্রতিবাদ জানানোর আগে হুমকির চিঠির বিষয়টি পাকিস্তানের সামরিক নেতৃত্ব ও কেন্দ্রীয় সরকারের মন্ত্রিপরিষদকে অবহিত করেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। এরপর জাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণে চিঠির বিষয়ে বলতে গিয়ে তিনি ‘মুখ ফসকে’ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নাম বলে দেন। তবে তাৎক্ষণিকভাবে তা তিনি শুধরে নেন। যুক্তরাষ্ট্রের দিকে ইঙ্গিত করে ইমরান খান বলেন, তারা আগেই জানত অনাস্থা ভোট হবে। অথচ তখনও অনাস্থা প্রস্তাব দেয়া হয়নি। এর অর্থ হলো বিরোধীরা বিদেশের এসব মানুষের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন। তারা বলছেন, তারা পাকিস্তানের ওপর ক্ষুব্ধ। তারা অজুহাত তৈরি করছে। তারা বলছে, তারা পাকিস্তানকে ক্ষমা করে দেবে যদি অনাস্থা ভোটে ইমরান খান হেরে যান। কিন্তু যদি এই পদক্ষেপ ব্যর্থ হয় তাহলে পাকিস্তানকে কঠিন সময় পার করতে হবে। ৮ মার্চ পাক সংবিধানের ৫৪ ধারার অধীনে বিরোধী দলগুলোর সম্মিলিত এক প্রতিনিধি দল প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের প্রতি অনাস্থা ভোটের জন্য জাতীয় পরিষদে প্রস্তাব জমা দেয়। ওদিকে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে ‘হত্যার ষড়যন্ত্র’ চলছে, এমন তথ্য রয়েছে দেশটির গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর কাছে। এ অবস্থায় ইমরান খানের নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও জোরদার করা হয়েছে। শুক্রবার পাক তথ্যমন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরী বলেন, পরিস্থিতি বিবেচনায় প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা বাড়ানোর পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। তিনি আরও বলেন, নিরাপত্তা সংস্থাগুলো জানিয়েছে, প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে হত্যার একটি পরিকল্পনা সামনে এসেছে। এমন রিপোর্টের পর প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের নিরাপত্তা জোরদারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এর আগে, ক্ষমতাসীন তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই)-এর নেতা ফয়সল ফাওয়াদ দাবি বলেন, প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের জীবন হুমকির মুখে রয়েছে এবং তার জীবন নেয়ার পরিকল্পনা করা হচ্ছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2013-2022 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com