শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ০২:০৮ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
সাতক্ষীরা কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালে মটর সাইকেল প্রতীকের অফিসে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মো: নজরুল ইসলাম, হাটবাজারে ঝক ঝকে তক তকে তাল ও তালশাঁস বেড়েছে অর্থনৈতিক গুরুত্ব ঃ সাতক্ষীরার তাল যাচ্ছে রাজধানী ঢাকায় বহেরায় দুইশত ফেনসিডিল ও একলক্ষ উনপঞ্চাশ হাজার টাকাসহ মাদক ব্যবসায়ী মাহবুব গ্রেফতার চাম্পাফুল গলায় রশি দিয়ে বয়স্ক নারীর আত্নহত্যা চাম্পাফুল তাফসিরুল কুরআন মাহফিল কালিগঞ্জে প্রতিবন্ধীদের মানববন্ধন কালিগঞ্জে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভা কালিগঞ্জে কৃষি যন্ত্রপাতি ও পরিবহন হস্তান্তর দখলদার বাহিনীর বিরুদ্ধে সর্বাত্মক যুদ্ধ শুরু হামাসের শ্যামনগরে সড়ক দুর্ঘটনায় মোটরসাইকেল চালক নিহত

কলারোয়ায় রাস্তার পাশে সরকারী গাছ রাতের আধারে কেটে নিয়ে যাওয়ার হিড়িক পড়েছে

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • আপডেট সময় রবিবার, ২০ ফেব্রুয়ারী, ২০২২

কলারোয়া (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি \ সাতক্ষীরার কলারোয়ায় গ্রাামীন রাস্তার দুই ধারে সরকারি ভাবে লাগানো বিভিন্ন প্রজাতির গাছ রাতের আধারে কেটে চুরি করে নিয়ে যাওয়ার হিড়িক পড়েছে। গত কয়েক মাস যাবত এভাবে উপজেলার বিভিন্ন এলাকার গ্রামীন সরকারী রাস্তার পাশ থেকে এসব গাছ গভীর রাতে কে বা কারা কেটে চুরি করে নিয়ে যাচ্ছে বলে লক্ষ্য করা যাচ্ছে। যেগুলো ইতোমধ্যে বেশ বড়ই হয়েছে। অনুমতি ছাড়াই এসব গাছ কর্তন করায় সরকারের লক্ষ লক্ষ টাকা ক্ষতি হচ্ছে। সচেতন মহলের ধারনা বন বিভাগের যোগসাজশে এ সব গাছ চুরি হচ্ছে। কলারোয়া উপজেলার বিভিন্ন গ্রাামীন সড়কের দুই পাশে পড়ে আছে শুধু গাছের কাটা অংশের মুল। এমন দৃশ্যই চোখে পড়ে। শনিবার সকালে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, কলারোয়া বনবিভাগসহ উপজেলা প্রশাসনকে বৃদ্ধাঙ্গলি দেখিয়ে উপজেলার ৪ নং লাঙ্গলঝাড়া ইউনিয়নের খাসপুর গ্রামের সরকারি রাস্তার পাশের ২ টি বাবলা গাছ গত ১৭ ফেব্রুয়ারী গভীর রাতে কে বা কারা কর্তন করে চুরি করে বিক্রি করে সরকারি সম্পদ লুটপাট করেছে। যার আনুমানিক মুল্য লক্ষাধিক টাকা। স্থানীয় জনগণ জানান, গাছগুলো রাস্তার সরকারি জায়গায় রোপন করা হয়েছিল। কিন্তু সে গুলো এখন রাতের আঁধারে কেটে নিয়ে যাচ্ছে। এদিকে সরকার যেখানে সবুজায়ন গড়ে তোলার লক্ষ্যে নানান প্রকল্প গ্রহণ করছে, সেখানে সরকারী রাস্তার গাছ দেদারছে কেটে ফেলা হচ্ছে। এসব গাছ কেউ কাটছে দিনের বেলায়, আবার কেউ কেটে নিয়ে যাচ্ছে রাতের আঁধারে চুরি করে। এতে সরকারের লাখ লাখ টাকার ক্ষতি হচ্ছে। এ বিষয়ে উপজেলা বন সংরক্ষণ কর্মকর্তা ইউনুস আলীর কাছে মাবাইল ফোনে জানতে চাইলে তিনি জানান, আমি গাছ কাঁটার ঘটনা জানতে পেরে সেখানে লোক পাঠিয়েছি এবং অনুসন্ধান চলছে। যেই গাছ কাঁটুক তাকে অবশ্যই আইনের আওতায় এনে শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2013-2022 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com