মঙ্গলবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১১:৩৩ অপরাহ্ন

গাজায় ক্ষয়ক্ষতির মুখে ইসরাইল

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • আপডেট সময় শনিবার, ১০ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪

দৃষ্টিপাত ডেস্ক ॥ দখলদার ইসরাইল বাহিনী একদিকে বিমান হামলা এবং অন্যদিকে স্থল হামলায় পুরোগাজাকে লন্ডভন্ড করে তুলেছে। ইসরাইল সেনা বাহিনী গতকাল রাফা শহরের সর্বত্র মধ্যযুগীয় বর্বরতায় মেতেছিল এমন খবর দিয়েছে কাতার ভিত্তিক টেলিভিশন চ্যানেল আল জাজিরা। ইসরাইলি বাহিনীর সদস্যরা গত সপ্তাহে খান ইউনিসের সর্বত্র যেমন লন্ডভন্ড করে সেখানে শ্মশানের নিরবতার দিক নির্দেশ করেছে ঠিক অনুুরুপ মানবহীন, জন মানবের বসবাসের আযোগ্য ভূমিতে পরিনত করতে চাইছে রাফা শহরকে। অবশ্য ইসরাইলি দখলদার বাহিনী গাজায় স্বস্তিতে নেই তারা যেমন গণহত্যা পরিচালনা করছে অনুরুপ ভাবে দখলদার বাহিনীর সদস্যরা প্রতি মুহুর্তে হামাস যোদ্ধাদের দ্বারা আক্রান্ত হচ্ছে। এক কথায় বলা যায় ইসরাইল বাহিনী হামাস সদস্যদের দ্বারা ব্যাপক ভিত্তিক ক্ষতিগ্রস্থ। হামাসের সশস্ত্র শাখা কাসেম ব্রিগেড জানিয়েছে ইতিমধ্যে দখলদার ইসরাইলি বাহিনীর পাঁচ সহস্রাধীক সেনাকে আমাদের যোদ্ধারা হত্যা করেছে এবং অন্তত দশ হাজার শত্র“ সেনা মারাত্মক ভাবে আগত হয়েছে। অবশ্য ইসরাইলি সরকারের পক্ষ হতে তিন শতাধীক সেনা সদস্যের নিহত হওয়ার কথা স্বীকার করা হয়েছে। কাতার ভিত্তিক টেলিভিশন চ্যানেল আল জাজিরা দাবী করে খবর প্রচার করেছে যে ইসরাইলের প্রতিবন্ধী পুনরবাসন কেন্দ্রে চার সহস্রাধীক সেনা চিকিৎসা গ্রহন করেছে। অবশ্য পশ্চিমা মিডিয়া ও রয়টার্স এর খবরে ও হজার হাজার ইসরাইলি সেনার নিহত ও আহত হওয়ার কথা স্বীকার করে সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে। দখলদার ইসরাইলি বাহিনীর নিষ্ঠুরতা কতটুকু স্পর্শ করেছে তার বিবরন দিয়েছে আল জাজিরা চ্যানেলটি গতকাল খবর প্রকশ করে বলেছে খান ইউনিসের একাধিক হাসপাতালে ইসরাইলি সেনারা প্রবেশ করে গুলি করে আহত ও চিকিৎসাধীন ফিলিস্তিনিদের হত্যা করেছে। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ফিলিস্তিনিদের হত্যার ঘটনা যুদ্ধের কোন নিয়মে পড়ে এমন ঘটনা কেবল অমানবিক বৈশাষিক নয় এমন ঘটনা অবশ্যই অবিশ্বাশ্য, অবশ্য দখলদার বাহিনীর জন্য সব কিছুই সম্ভব কারন যারা বিমান হামলা পরিচালনা করে পাখির মত মানুষ হত্যা করতে পারে। মায়ের কোলে থাকা, ঘুমন্ত অবস্থায় থাকা শিশুকে হত্যা করতে পারে তাদের জন্য সব কিছুই সম্ভব। আল জাজিরা টেলিভিশন আরও জানিয়েছে দখলদার বাহিনীর প্রধান শিকারে পরিনত হচ্ছে হাসপাতালে কর্মরত ও চিকিৎসা দান করা চিকিৎসকরা। দখলদার বাহিনীর এমন হিসাব ফিলিস্তিনিদের বেঁচে থাকবার অধিকার নেই আর ফিলিস্তিনিদের চিকিৎসা সেবা দিয়ে যে সকল চিকিৎসকরা সুস্থ করে তুলছে তাদেরও বেঁচে থাকবার অধিকার নেই। ইতিহাসের নির্মম, কঠিন এবং চরম অমানবিক সময় অতিক্রম করছে গাজা, বিভিষিকাময় অন্ধকারাচ্ছন্ন পরিবেশের অবতারনা ঘটেছে গাজায়। হাসপাতাল গুলোর অধিকাংশ ধ্বংস হয়েছে, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলো বেঁচে নেই, আশ্রয় শিবির গুলোতে খাদ্যের অভাবে হাহাকার করছে। নানান ধরনের রোগ ব্যাধিতে আক্রান্ত হলেও আশ্রয় শিবির গুলোতে চিকিৎসা সেবা পৌছাচ্ছে না, এখানেই শেষ কথা নয়, আশ্রয় শিবির গুলোতে দখলদার ইসরাইলি বাহিনীর সদস্যরা বারবার বিমান হামলা পরিচালনা করে মৃত্যু পুরীতে পরিনত করছে। রাফা সহ পশ্চিম গাজায় গত চব্বিশ ঘন্টায় ইসরাইলি বাহিনীর বিমান হামলায় শতাধিক ফিলিস্তিনির মৃত্যু ঘটেছে। দখলদার ইসরাইলি বাহিনী বিমান হামলা ও স্থল হামলায় ফিলিস্তিনিদের হত্যার পাশাপাশি তাদেরকে গ্রেফতার করছে। গাজার বিভিন্ন এলাকা হতে গ্রেফতার করা ফিলিস্তিনিদেরকে ইসরাইলের কারাগারে বন্দী করে রাখা হয়েছে। হামাসের পক্ষ হতে আবারও অভিযোগ করে বলা হয়েছে ইসরাইলের অন্ধকার কারাগারে আটক ফিলিস্তিনিদের উপর ব্যাপক ভাবে শারিরীক নির্যাতন করা হচ্ছে, মহিলা বন্দীদের উপর যৌন নির্যাতন চালানো হচ্ছে। পরিস্থিতি এমন যে ফিলিস্তিনিদেরকে বেঁচে থাকার কোন অধিকার যেন নেই। এদিকে হামাস ইসরাইল যুদ্ধ বিরতির প্রস্তাবের মৃত্যু ঘটনায় দখলদার ইসরাইলি বাহিনী এবং হামাস উভয়ই শক্তি প্রয়োগ করছে। হামাস ইসরাইল যুদ্ধ পাঁচমাস অতিবাহিত হলেও দখলদার ইসরাইলি বাহিনীর সদস্যরা এখনও পর্যন্ত কোন ভাবেই ইসরাইলি বন্দীদের উদ্ধার করতে পারেনি এবং হামাসের শক্তি ও খর্ব করতে পারেনি। আবারও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র হুতি যোদ্ধাদের নির্মূলের লক্ষে ইয়েমেনের একাধিক স্থানে হামলা চালিয়েছে। হুতিদের কঠোর ঘোষনা তারা বলেছে প্রয়োজনে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অভ্যন্তরে তারা হামলা পরিচালনা করবে। কাতারে হামলা চালিয়ে হিজবুল্লাহর এক শীর্ষ কমান্ডারকে হত্যার খবর পাওয়া গেছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2013-2022 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com