শুক্রবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৬:২২ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
কয়রায় উৎসবমুখর পরিবেশে খুলনা-৬ মনোনয়ন পত্র জমা দিলেন নৌকার মাঝি মোঃ রশীদুজ্জামান খুলনা-১ আসনে আ’লীগের প্রার্থী ননী গোপালের মনোনয়নপত্র জমা চাপড়ায় বীর মুক্তিযোদ্ধা মান্নানের রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন সাতক্ষীরায় দ্বাদশ জাতীয় সংসদ বিভিন্ন দলের ৩৭ প্রার্থীর মনোনয়নপত্র দাখিল যুদ্ধ বিরতির মাঝেই ইসরাইলি সেনাদের গুলিতে তিন ফিলিস্তীনি নিহত প্রতাপনগরে দুর্যোগ ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক সচেতনতা বৃদ্ধিমূলক মহড়া কালিগঞ্জে নৌকার মনোনিত প্রার্থীর আগমনে উপজেলা আ“লীগের বর্ধিত সভা কালিগঞ্জ মাস ব্যাপী আয়কর তথ্য ও সেবা মাস অনুষ্ঠিত ফিংড়ীতে ৮ দলীয় গাদন দাঁড়ি প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত বন্ধকাটি মুজিবকিল্লার নতুন ভবন পরিদর্শন

তফসিলের অপেক্ষা দ্বাদশ নির্বাচনের

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • আপডেট সময় শুক্রবার, ১০ নভেম্বর, ২০২৩

#ইসিকে সাহসিকতা সঙ্গে নির্বাচনী দায়িত্ব পাললেন আহ্বান রাষ্ট্রপতির
# ইসির প্রস্তুতি সন্তোষ প্রকাশ মহামান্যের : সিইস
জি এম শাহনেওয়াজ ঢাকা থেকে ॥ দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ক্ষণ-গণনা শুরু হয়েছে পহেলা নভেম্বর থেকে। ভোট আয়োজনের দুটি নির্বাচনী সামগ্রী (স্ট্যাম্প প্যাড ও অমোচনীয় কালির কলম) ছাড়া সব প্রস্তুতি শেষ। আর সর্বশেষ আনুষ্ঠানিকতা রাষ্ট্রপতির সঙ্গে ইসি কমিশনের সাক্ষাত-ও। এখন অপেক্ষা দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচনের। ইসির সূত্রগুলো বলছে, আসন্ন সপ্তাহে কমিশন সভা ডেকে ঘোষণা করা হবে তফসিল। ভোট জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে। যেদিন তফসিল ঘোষণা করা হবে ঠিক দুই থেকে তিন ঘন্টা আগে কমিশন সভা আহবান করা হবে। জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণের জন্য আগামী শনি অথবা রবিবার বাংলাদেশ টেলিভিশনে (বিটিভি) রেকডিংয়ের সময় চেয়ে পত্র দেয়া হবে বলে ইসির দায়িত্বশীল একজন কর্মকর্তা নিশ্চিত করেছেন। এদিকে, নির্বাচনের সব ধরণের প্রস্তুতি নিয়ে বৃহস্পতিবার রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন সঙ্গে বৈঠক করেছে ইসি। বৈঠকে তফসিলের সম্মতি নিয়ে এসেছে সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানটি। ইসির কর্মকর্তারা জানান, তফসিল ঘোষনার জন্য শুধু অপেক্ষা করা এখন। কারণ রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাতের মধ্যে দিয়ে তফসিলের সব ধরণের বাধা শেষ হয়েছে। শুধু তফসিল ঘোষণা ইস্যুতে রাজনৈতিক উদ্ভুদ পরিস্থিতির জন্য কিছু ধীরে চলো নীতি ইসির। এ ছাড়া সব ধরণের বাধা উপেক্ষা করে ইসি নির্বাচনী ট্রেন উঠেছে; তার আলোকে কাজ এগিয়ে যাচ্ছে। সংবিধান অনুযায়ী ভোট হবে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে। এখনো ভোটের তফসিলের সম্ভাব্য সময় ১৪ নভেম্বর। আর ভোটগ্রহণ করা হবে জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহেত। প্রাপ্ত তথ্যমতে, ভোটার তালিকা এবং ভোটের মালামাল কেনা-কাটাসহ সব প্রস্তুতি শেষ। এখন স্টাম্প এবং কলম এক সপ্তাহের মধ্যে ইসি হতে পেলে প্রস্তুতির কাজ সব শেষ হবে। এদিকে, সিইসি কমিশনার বৃহস্পতিবার বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিনের সঙ্গে সাক্ষাতে তিনি বলেন, আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠু করতে সাংবিধানিক রীতিনীতি ও বিধিবিধান অনুসরণ করে কমিশনকে সাহসিকতা ও আন্তরিকতার সঙ্গে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করতে হবে। বলেন, নির্বাচন কমিশনের একার পক্ষে সুষ্ঠু নির্বাচন করা সম্ভব নয়। একটি সুষ্ঠু ও সুন্দর নির্বাচনের জন্য প্রয়োজন নির্বাহী বিভাগসহ জনগণের সক্রিয় সহযোগিতা। রাষ্ট্রপ্রধান রাজনৈতিক দলগুলোকে এ লক্ষ্যে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, দেশে উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে হলে গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত রাখতে হবে। সুষ্ঠু ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন গণতন্ত্রকে শক্তিশালী করে উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, গণতন্ত্র ও উন্নয়ন একসঙ্গে চলে। নির্বাচনকে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় জনগণের মতামতের প্রতিফলনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, নির্বাচনের মাধ্যমে জনগণ তাদের প্রতিনিধি নির্বাচন করেন এবং প্রতিনিধির মাধ্যমেই জনগণের প্রত্যাশা পূরণ হয়। মো. সাহাবুদ্দিন আশা করেন, আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে সম্পন্ন করতে সরকার নির্বাচন কমিশনকে সার্বিক সহযোগিতা করবে। সাক্ষাৎকালে প্রধান নির্বাচন কমিশনার আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সার্বিক প্রস্তুতি সম্পর্কে রাষ্ট্রপতিকে অবহিত করেন। বৈঠক শেষে আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি সম্পর্কে অবহিত হয়ে রাষ্ট্রপতি সন্তোষ প্রকাশ করেছেন বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল। বৃহস্পতিবার (৯ নভেম্বর) দুপুরে বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিনের সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের সামনে এ কথা বলেন সিইসি। কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেন, আমাদের আাসার মূল উদ্দেশ্য ছিল মহামান্য রাষ্ট্রপতিকে আসন্ন নির্বাচন বিষয়ে আমাদের যে প্রস্তুতি গৃহীত হয়েছে, সেটা অবহিত করা। আমরা মহামান্য রাষ্ট্রপতিকে আমাদের সার্বিক প্রস্তুতি সম্পর্কে অবহিত করেছি। উনি শুনেছেন, সন্তুষ্ট হয়েছেন। নির্বাচনের সম্ভাব্য সময়সূচি নিয়ে আলোচনা হয়েছে কি না, জানতে চাইলে সিইসি বলেন, সম্ভাব্য সময়সূচি নিয়ে ওনাকে জানিয়েছি যে, নির্বাচন অত্যাসন্ন। এটা উনিও জানেন যে শেষ সময়টা ২৯ জানুয়ারি, এর আগেই করতে হবে। আমরা জানিয়েছি, এখনো কোনো সিদ্ধান্ত নিইনি। আমরা আজকে ওনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করে গেলাম, মতবিনিময় করে গেছি। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা তো বলেছি, তফসিল দ্রুত ঘোষণা করব। কারণ সময় হয়ে গেছে। নির্বাচনের ব্যাপারে আমরা যেটি বলেছি, প্রথম সপ্তাহে বা দ্বিতীয় সপ্তাহে, আমরা এখনো ওই অবস্থায় আছি। তবে আমরা বসে যখন এটি চূড়ান্ত করব, তখন আপনাদের অবহিত করব। ভোটের মাঠের রাজনৈতিক বাস্তবতা নিয়ে কোনো কথা হয়েছে কি না, জানতে চাইলে তিনি বলেন, ওটা নিয়ে আমাদের তেমন আলোচনা হয়নি। আমরা শুধু আমাদের কথা বলেছি এবং প্রত্যাশা ব্যক্ত করেছি যে, আমরা যাতে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে নির্বাচন হয়, সে বিষয়ে সবাই যেন সহযোগিতা করেন। তফসিল ঘোষণার সময়, রাজনৈতিক বিরোধ ও নির্বাচনে অনাগ্রহীদের উদ্দেশে কিছু বলবেন কি না, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে ‘না, এই মুহূর্তে আমি আর বক্তব্য দিব না’ বলে চলে যান সিইসি। এর আগে তিনি বলেন, আসন্ন নির্বাচন অবাধ, নিরপেক্ষ, সুন্দর, সুষ্ঠুভাবে, সুশৃঙ্খলিত হবে বলে মহামান্য রাষ্ট্রপতি আশা ব্যক্ত করেছেন। এ ব্যাপারে ওনার সহযোগিতা যদি প্রয়োজন হয়, তা তিনি করবেন বলে আশা দিয়েছেন। আমরা বলেছি, আপনার সাহায্য-সহযোগিতা প্রয়োজন হলে গ্রহণ করব। তিনি আমাদের আশ্বস্ত করেছেন যে, অবাধ নির্বাচনের স্বার্থে যেকোনো ধরনের সাহায্য-সহযোগিতা দিতে তিনি সদা প্রস্তুত থাকবেন। রাষ্ট্রপতিকে উদ্ধৃত করে সিইসি আরও বলেন, তিনি বলেছেন, গণতান্ত্রিক যে ধারাবাহিকতা, সাংবিধানিক যে ধারাবাহিকতা, এটাকে যেকোনো মূল্যে অব্যাহত রাখতে হবে। আমরা ওনাকে জানিয়েছি, আমরা নির্বাচন কমিশন, আমাদের ওপর সাংবিধানিকভাবে যে দায়িত্ব আরোপিত হয়েছে এবং সেখানে যে বাধ্যবাধকতা রয়েছে, আমরা সে অনুযায়ী নির্ধারিত সময়ে, নির্ধারিত পদ্ধতিতে নির্বাচন করতে বদ্ধপরিকর। আমরা ওনাকে বলেছি, আমরা সব রাজনৈতিক দল, সরকার ও জনগণের সহযোগিতা নিরবচ্ছিন্নভাবে কামনা করে যাচ্ছি। তিনি বলেন, আমরা ওনাকে আশ্বস্ত করেছি, আমরা আশাবাদী যে সবার সহযোগিতায় আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন সাংবিধানিক যে বাধ্যবাধকতা আছে, ওর আলোকে যথাসময়ে নিষ্পন্ন করতে সমর্থ হব। জানতে চাইলে রাজনৈতিক মতানৈক্যের বিষয়ে কোনও মন্তব্য করতে চাননি সিইসি। ব্রিফিংকালে সিইসির সঙ্গে চার নির্বাচন কমিশনার, সচিব ও যুগ্মসচিব (আইন) উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2013-2022 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com