সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৪:২৯ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
পঞ্চগড়ে নৌকাডুবি: ২৪ জনের লাশ উদ্ধার, নিখোঁজ অনেকে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ আজ বিশ্বের রোল মডেল \ মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক এমপি সাতক্ষীরা মেডিকেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন দগ্ধ রোগীদের দেখতে যান নাগরিক কমিটির নেতৃবৃন্দ সিন্ডিকেটের কারসাজিতে অস্বাভাবিক বেড়েছে রড ও সিমেন্টের দাম নিউইয়র্ক থেকে ওয়াশিংটন ডিসি পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রীকে মুক্তিযোদ্ধা সন্তান সংসদের ফুলেল শুভেচ্ছা প্রদান প্রাইভেট ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক ওনার্স এসোঃ’র কমিটি গঠন সাতক্ষীরায় এমপি রবি ফুটবল টুর্নামেন্টের প্রথম রাউন্ডের শেষ খেলায় \ সাতক্ষীরা সদরকে হারিয়ে ধুলিহর ইউনিয়নের জয়লাভ কালিগঞ্জে ভগ্নিপতি হত্যা মামলা \ প্রধান আসামী ফজর আলী আটক ৪ বিভাগে বৃষ্টি বাড়তে পারে, উত্তরে কমতে পারে তাপমাত্রা

তাইওয়ানে হামলা হলে মার্কিন সেনারা রক্ষা করবে -বাইডেন

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২২

এফএনএস বিদেশ: চীন যদি তাইওয়ান আক্রমণ করে, তাহলে মার্কিন সেনা তাদের রক্ষা করবে বলে জানিয়ে দিলেন জো বাইডেন। এক সাক্ষাৎকারে প্রেসিডেন্ট বাইডেন বলেছেন, তাইওয়ানের প্রতি মার্কিন নীতি বদলায়নি। সাক্ষাৎকারে বাইডেন বলেছেন, আমেরিকা এক চীন নীতি সমর্থন করে এবং তাইওয়ানের স্বাধীনতা মানে না। কিন্তু যখন তাকে প্রশ্ন করা হয়, চীন যদি তাইওয়ান আক্রমণ করে তখন কি মার্কিন বাহিনী সেখানে যাবে? বাইডেনের জবাব, ‘অবশ্যই যাবে।’ পরে হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র জনিয়েছেন, তাইওয়ান নিয়ে মার্কিন নীতির কোনো বদল হয়নি। আমেরিকার দীর্ঘদিনের নীতিই হলো, তাইওয়ান আক্রান্ত হলে তারা তাদের সাহায্য করবে। প্রসিডেন্ট একথা আগেও বলেছেন। তিনি টোকিওতে গিয়ে বলেছেন। তাইওয়ান নিয়ে নীতির বদল হয়েছে, একথা বলা যাবে না। গত মে মাসে বাইডেনকে জিজ্ঞাসা করা হয়, চীন যদি তাইওয়ান আক্রমণ করে, তাহলে আমেরিকার সেনা কি সেখানে যাবে? সামরিক দিক দিয়ে সেই সংঘাতে জড়াবে আমেরিকা? বাইডেন তখন বলেছিলেন, ‘হ্যাঁ, আমরা সেই প্রতিশ্র“তি তাইওয়ানকে দিয়েছি।’ তখনো হোয়াইট হাউস বলেছিল, তাইওয়ান নিয়ে মার্কিন নীতির বদল হয়নি, সেটাই বাইডেন বোঝাতে চেয়েছেন। তাইওয়ান নিয়ে উত্তেজনা বাড়ছে: মার্কিন হাউস অফ রিপ্রেজেন্টেটিভসের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি গত মাসে তাইওয়ান সফরে যান। তার সফর প্রসঙ্গে চীন বলেছিল, আমেরিকা আগুন নিয়ে খেলছে। পেলোসির সফরের পরেই তারা তাইওয়ানকে ঘিরে সামরিক কুচকাওয়াজ শুরু করে দেয়। চীনের দাবি, তাইওয়ান তাদেরই এলাকা। পরে উচ্চ পর্যায়ের ফরাসি প্রতিনিধিদলও তাইওয়ান যায়। এই মাসের গোড়ায় তাইওয়ানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জোসেফ উ বলেন, চীন ভবিষ্যতে তাইওয়ান আক্রমণ করতে পারে। তারই কৌশল তৈরি করছে তারা। গত ২ সেপ্টেম্বর মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তাইওয়ানের সাথে ১১০ কোটি ডলারের অস্ত্র চুক্তি করেছে। এই অর্থ দিয়ে ক্ষেপণাস্ত্র ও রাডার কেনা হবে। মার্কিন কংগ্রেসে অনুমোদিত আইন অনুসারে, তাইওয়ানকে সামরিক সাহায্য করতে আমেরিকা দায়বদ্ধ। সূত্র : ডয়চে ভেলে

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2013-2022 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com