রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ০১:৪১ অপরাহ্ন

নলতা শরীফে অব্যাহত দেশের সর্ববৃহৎ ইফতার মাহফিলে ৫ সহ¯্রাধিক রোজাদার

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • আপডেট সময় রবিবার, ২৪ এপ্রিল, ২০২২

বিশেষ প্রতিনিধি \ সাতক্ষীরা জেলার কালিগঞ্জ উপজেলার নলতা শরীফে পীর-এ কামেল বিংশ শতাব্দীর শ্রেষ্ঠ মোজাদ্দেদ, অবিভক্ত বাংলা ও আসামের শিক্ষা বিভাগের সহকারী পরিচালক, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও শিক্ষা সংস্কারক, প্রখ্যত সাহিত্যিক, সমাজ সেবক, আত্মাধিক সাধক, সমাজ সংস্কারক, জ্ঞান তাপস, মুসলিম রেনেঁসার অগ্রদুত, মুক্তবুদ্ধি ও অসা¤প্রদায়িক চিন্তা-চেতনার অধিকারী, মনোচিকিৎসক, ঐতিহাসিক, দার্শনিক সুলতানুল আউলিয়া কুতুবুল আকতাব গওছে জামান আরেফ বিল­াহ হজরত শাহ্ ছুফী আলহাজ্জ খানবাহাদুর আহ্ছানউলা (রঃ) এঁর হাতে গড়া ‘‘স্রষ্টার এবাদত ও সৃষ্টের সেবা” ব্রত নিয়ে চলা নলতা কেন্দ্রীয় আহ্ছানিয়া মিশনের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় নলতা পাক রওজা শরীফ প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত অব্যাহত ইফতার মাহফিলে জেলার বিভিন্ন উপজেলা থেকে আগত ৫ সহ¯্রাধি রোজাদার অংশ গ্রহন করেন বলে মিশনের কর্মকর্তা খায়রুল হাসান ও হিসাব রক্ষক মোঃ এবাদুল হক জানিয়েছেন। তারা আরো জানান মিশনের রন্ধনশালায় নিজস্ব কারিগরদ্বারা কিছু ইফতারির মেনু প্রস্তত করে ও বাইরে থেকে ক্রয় করে প্রতিদিন মোট ৮ প্রকারের ইফতার সামগ্রী প্রদান করা হচ্ছে। ইফতার সামগ্রীর মধ্যে আছে ডিম, ছোলা, চিড়া, পাকা কলা, খেঁজুর, খিরাই, সুজির ফিন্নি ও সিঙ্গাড়া। রোদ-বৃষ্টি উপেক্ষা করে সুষ্ঠু ও ধর্মীয় ভাব-গাম্ভীর্য পরিবেশে রমজানের প্রথম থেকে শেষ দিন পর্যন্ত অব্যহাত ইফতার মাহফিলে যাতে রোজাদাররা ইফতার করতে পারেন সেজন্য মিশন কর্তৃপক্ষ লক্ষ লক্ষ টাকা ব্যয়ে চারদিকে বাঁশের রেলিং ও মাথার উপরে টিনের ছাউনি দ্বারা মনোরম পরিবেশের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এছাড়াও রোজাদারদের সুষ্ঠভাবে ইফতারী করতে সারিবদ্ধভাবে বসার ব্যবস্থা, ইফতারীর প্লেট ও গ্লাস দেওয়ার জন্য প্রতিদিন মিশন কর্মকর্তা-কর্মচারী ও কয়েকশত স্বেচাসেবক নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। উক্ত ইফতার মাহফিলে পবিত্র কোরআন ও হাদীসের আলোকে মূল্যবান আলোচনা রাখেন ও দোয়া পরিচালনা করেন, নলতা শরীফ শাহী জামে মসজিদের খতিব মাওঃ আবু সাইদ। গতকাল২১ রমজানের ইফতার মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন, নলতা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি সমাজ সেবক আলহাজ্জ মোঃ আনিছুজ্জামান খোকন, মিশনের সহ-সভাপতি শিক্ষক আলহাজ্জ মোঃ সাইদুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্জ এনামুল হক, নলতা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আনোয়ারুল হক, শিক্ষক আলহাজ্জ আবুল ফজল প্রমূখ। এদিকে ইফতার করতে আসা রোজাদারদের বাইসাইকেল, মোটরসাইকেল, ভ্যানসহ অন্যান্য যানবাহন ও জুতা যাতে চুরি না হয় সেজন্য মিশন কর্তৃপক্ষ নিরাপদে রাখার ব্যবস্থা করেছে। এভাবেই রমজানের শেষ পর্যন্ত ইফতার মাহফিল অব্যাহত থাকবে বলে মিশন কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2013-2022 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com