বৃহস্পতিবার, ১৮ অগাস্ট ২০২২, ০৬:৫৪ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
মাউশির অসাধু চক্রের কাছে \ জিম্মি বেসরকারি স্কুল-কলেজের শিক্ষকরা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান পিপিএম বার এর বিদায়ে \ সুশীলসমাজ ও শুভাকাঙ্খীদের সৌজন্যে বিদায়ী আয়োজন জেলা পুলিশের দেশ স্বাধীন না হলে বাংলাদেশের জন্ম হত না \ জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভায় সাতক্ষীরার জেলা ও দায়রা জজ বিভিন্ন কর্মসূচির মাধ্যমে সপ্তাহব্যাপী বৃক্ষ মেলা উদ্বোধন সাতক্ষীরায় ১৭ আগষ্ট সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ ১৫ আগস্টের পর বিচার চাইতেও বাধা দেওয়া হয়েছে -প্রধানমন্ত্রী সখিপুর দেবহাটা সড়কে ট্রাকের চাকায় মৃত্যু হলো ব্যবসায়ীর মহাকবি’র জন্মস্থান সাগরদাঁড়ি পরিদর্শন করলেন খুলনা বিভাগীয় কমিশনার আশাশুনিতে স্বল্পমূল্যে ভারতীয় রুপি বিক্রয়ের প্রলোভনে প্রতারনাকালে আটক-২ খলিষখালীতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি

পদ্মা সেতুতে বাইক দুর্ঘটনায় ঝরল দুই প্রাণ

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • আপডেট সময় সোমবার, ২৭ জুন, ২০২২

এফএনএস : পদ্মা সেতুতে যান চলাচল শুরুর পর প্রথম দিনের আনন্দ আর উদযাপনের আবহের মধ্যেই দুর্ঘটনায় দুই বন্ধুর মৃত্যুর খবর এল। পুলিশ বলছে, রোববার সন্ধ্যায় সেতুর ২৭ এবং ২৮ নম্বর পিয়ারের মাঝামাঝি এলাকায় মোটরসাইকেলে চড়ে মোবাইলে ভিডিও করার সময় দুর্ঘটনায় পড়েন ওই দুই তরুণ। পরে রক্তাক্ত অবস্থায় তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। রাত সাড়ে ১০টার দিকে হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন বলে মেডিকেল ফাঁড়ি পুলিশের পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া জানান। তিনি বলেন, “দুইজনকেই মৃত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়েছিল।” নিহত দুজনেরই বাড়ি ঢাকার দোহার-নবাবগঞ্জ এলাকায়। তাদের মধ্যে ২৫ বছর বয়সী ফজলু কিছুদিন আগে দেশের বাইরে থেকে এসেছেন। আর সমবয়সী আলমগীর পেশায় মোটর মেকানিক। পুলিশের ঢাকা রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি জিহাদুল কবির বলেন, “মোটরসাইকেল আরোহীদের একজন চলন্ত অবস্থায় ভিডিও করছিলেন। ঘটনাস্থলে পাওয়া একটি মোবাইলে থাকা ভিডিওতে একটি ট্রাক ওভারটেক করার দৃশ্য দেখা গেছে। এরপরই ভিডিওটি বন্ধ হয়ে যায়। মনে হচ্ছে তারা ট্রাকের ধাক্কায় ছিটকে পড়ে গিয়েছিলেন।” ৬ কিলোমিটার দীর্ঘ পদ্মা সেতুতে বাইসাইকেল, অটোরিকশা চলাচল নিষিদ্ধ থাকলেও মোটর সাইকেল চলাচলে বাধা ছিল না। বাইকের জন্য ১০০ টাকা টোলও নির্ধারিত হয়েছিল। শনিবার উদ্বোধনের পর রোববার সকাল ৬টায় খুলে দেওয়া হয় পদ্মা সেতু। তখন থেকেই মোটর সাইকেলের ঢল নামে। সন্ধ্যার পরও শত শত মোটর সাইকেলকে সেতুর দুই প্রান্তের টোল প্লাজায় ভিড় করে থাকতে দেখা যায় পার হওয়ার অপেক্ষায়। মোটর বাইকের আরোহীরা সেতুর উপর উঠে দল বেঁধে, আনন্দ-উল−াস আর হৈ-হুলে−াড়ে মেতে ছিল দিনভর। এর মধ্যে সন্ধ্যার পর বাইক দুর্ঘটনার খবর আসে সোশাল মিডিয়ায়। ফেইসবুক ও ইউটিউবে ছড়িয়ে পড়া একাধিক ভিডিওতে দেখা যায়, সেতুর মাঝখানে বিভাজকের পাশে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে আছে দুই তরুণ, পাশেই মোটর সাইকেল। ফজলু ও আলমগীরের বন্ধু জয়দেব রায় ঢাকা মেডিকেলে কলেজ হাসপাতালে জানান, তারা ছয় বন্ধু তিনটি মটরসাইকেল নিয়ে পদ্মা সেতু দেখতে গিয়েছিলেন। সেতু পার হয়ে ওপারে যাওয়ার পর জাজিরা থেকে আবার মাওয়ায় ফেরার সময় ওই দুর্ঘটনা হয়। “ফেরার পথে আমাদের দুটো মোটর সাইকেল আগে চলে এলেও আরেকটা পিছিয়ে পড়ে। ওদের দেরি দেখে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করি। কিন্তু না আসায় পেছনে ফিরে গিয়ে দেখি ওরা দুর্ঘটনায় পড়েছে। পরে ওদের ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে আসি।” এ ঘটনায় মাদারীপুরের শিবচর থানায় একটি মামলা করা হবে বলে জানান ঢাকা রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি জিহাদুল কবির।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2013-2022 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com