মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ০৮:৫৩ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
হারিয়ে যাচ্ছে ডাক বিভাগের ঐতিহ্য \ দেখা নেই চিঠি হাতে ডাক পিয়নের চিঠির পরিবর্তে তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহার \ কুরিয়ার সার্ভিস গুলোর সেবার মান নিয়ে প্রশ্নের শেষ নেই মিরাজের দৃঢ়তায় বুক কাঁপিয়ে জয় টাইগারদের বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা ফুটবল দলের অধিনায়ক সাফ জয়ী সাবিনা খাতুন ও ডিফেন্ডার মাসুরা পারভীনকে সংবর্ধনা প্রদান দেশ বাঁচাতে নৌকায় ভোট দিন \ চট্টগ্রামের জনসভায় প্রধানমন্ত্রী বীর নিবাস পরিদর্শন করলেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির সাতক্ষীরায় বকচরা এলজিইডির কাপেটিং রাস্তায় কাজের উদ্বোধন এমবাপে-জিরুদের গোলে শেষ আটে ফ্রান্স সাতক্ষীরায় কমিউনিটি ক্লিনিকে রোগী দেখলেন সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ ফারহাদ জামিল সশস্ত্র বাহিনীর জন্য আধুনিক ও সময়োপযোগী যুদ্ধাস্ত্র সংগ্রহ করছে সরকার -প্রধানমন্ত্রী কলারোয়ায় সরিষা ফুলের মৌ মৌ গন্ধে মুখরিত ফসলের মাঠ

বিএনপি নেতা হাবিবের ১০ বছরের সাজা বহাল

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ৭ এপ্রিল, ২০২২

এড. তপন কুমার দাস \ সাতক্ষীরার কলারোয়ায় তৎকালীন বিরোধী দলীয় নেত্রী ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার গাড়ি বহরে হামলা মামলায় সাজাপ্রাপ্ত ৫০ জন আসামীর মধ্যে সাজাপ্রাপ্ত আসামী বিএনপি নেতা প্রাক্তন সংসদ সদস্য মোঃ হাবিবুল ইসলাম হাবিব ও মোঃ ইয়াছিন আলির ৪০/২১, ১১৮/২১নং ক্রিমিনাল আপিল আবেদন নামঞ্জুর করেন সাতক্ষীরার বিজ্ঞ সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমান এর আদালত। বিজ্ঞ চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ হুমায়ুন কবীরের আদালতে গত ইং ৪/২/২১ তারিখের দণ্ডাদেশ বহাল রাখেন। গতকাল বুধবার সাতক্ষীরার সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমান এক জনাকীর্ণ আদালতে এ রায় ঘোষণা করেন। উলে­খ্য সাতক্ষীরার বিজ্ঞ চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ হুমায়ুন কবীরের আদালত বিএনপি নেতা প্রাক্তন সংসদ সদস্য মোঃ হাবিবুল ইসলাম হাবিবকে ভিন্ন ভিন্ন ধারায় সর্বমোট ১০ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও ২৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও পাঁচ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ প্রদান করেন। বিজ্ঞ আদালত সময়োপযোগী এবং জ্ঞানগর্ভ বিচারিক পর্যবেক্ষণ দিয়েছেন, যা রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা অনৈতিক ভাবে ব্যবহার, স্বেচ্ছাচার এবং স্বেচ্ছাচারিতার পরিণতি যে ভোগ করতে হয় তা পর্যবেক্ষণে স্পষ্ট হয়েছে। বিজ্ঞ আদালত পর্যবেক্ষণে বলেন স্বীকৃত যে, মামলার প্রধান ভিকটিম জননেত্রী শেখ হাসিনা ঘটনার সময় রাষ্ট্রের সদ্য সাবেক প্রধানমন্ত্রী, তৎকালীন সংসদ সদস্য ও জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় নেত্রী। স্বাভাবিকভাবেই মামলার প্রধান ভিকটিম জননেত্রী শেখ হাসিনা তৎকালীন সদ্য সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও তৎকালীন জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেত্রী হওয়ায় তাঁর অফিস ও সরকারি বাসস্থান রাজধানী ঢাকাতে। রাজধানী ঢাকা হতে প্রায় ৩০০ কিলোমিটার দূরে একটি মফস্বল শহরে একটি মানবিক কাজ শেষে (সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে একজন বীর মুক্তিযোদ্ধার ধর্ষিতা স্ত্রীকে দেখতে এসে) ফেরার পথে আসামিদের দ্বারা সংঘটিত এমন ঘটনা ধিক্কার জনক ও চরমভাবে নিন্দনীয়। এটা কেবলই একটি দণ্ডনীয় অপরাধ নয় বরং দেশের রাষ্ট্রাচার, মানবিকতা, নৈতিকতা ও সৌজন্যবোধ এর ক্ষেত্রে চরম কুঠারাঘাত। অধিকন্তু আসামি মোঃ হাবিবুল ইসলাম হাবিব সাতক্ষীরা জেলার তালা-কলারোয়া আসনের তৎকালীন একজন জাতীয় সংসদ সদস্য। জাতীয় সংসদ সদস্য হয়েও উক্ত সময়ের জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় নেত্রী এবং সাবেক প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ও তাঁর সফরসঙ্গীদের আগ্নেয়াস্ত্রসহ হামলার ঘটনার নেতৃত্ব দেওয়া সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণ করে আসামি মোঃ হাবিবুল ইসলাম হাবিব জেনে বুঝে দেশের প্রচলিত আইন কানুন লংঘন করে যা একেবারেই অনভিপ্রেত। মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০০২ সালের ৩০ আগস্ট তৎকালিন বিরোধী দলীয় নেত্রী ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাতক্ষীরায় মুক্তিযোদ্ধার ধর্ষিতা স্ত্রীকে হাসপাতালে দেখে ফিরে যাওয়ার পথে কলারোয়ায় সন্ত্রাসীদের দ্বারা হামলার শিকার হন। রাষ্ট্রপক্ষে বিজ্ঞ পিপি এড. মোঃ আব্দুল লতিফ সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়ে তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেত্রী ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার গাড়িবহরে হামলা মামলা পরিচালনা করেন। আপীলকারির পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন এড. মোঃ আব্দুল মজিদ।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2013-2022 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com