মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০১:৪৪ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
শক্তিশালী ভ‚মিকম্পে তুরস্কে ও সিরিয়ায় নিহত ১৩০০ ছাড়িয়েছে সুন্দরবনের তিন বাঘ টহলফাঁড়ি এলাকায় নিরাপত্তা হীনা নাকি খাদ্যভাব, কি জানান দিতে এসেছিল তারা? সাতক্ষীরা থানা পুলিশের অভিযানে ১৮ পিচ স্বর্ণের বার সহ ১ চোরাকারবারী আটক তিন ফসলি জমিতে প্রকল্প না নিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ মুন্সিগঞ্জে র‌্যাবের অভিযানে বাঘের চামড়া উদ্ধার সুন্দরবনের শরবতখালী টহল ফাঁড়িতে দুই বাঘের গর্জন আতঙ্কে বনরক্ষীরা বাঁশদহা আ’লীগের বিশেষ বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত নারায়ণগঞ্জের ফকির এপ্যারেলস পরিদর্শনে বেলজিয়ামের রাণী সাতক্ষীরায় রোজ গার্ডেন স্কুলে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরনী আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো

বিশ্ব ব্যাংকসহ সংস্থাগুলোকে সহায়তা বাড়ানোর আহŸান প্রধানমন্ত্রীর

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ২৪ জানুয়ারী, ২০২৩

এফএনএস: কোভিড-১৯ মহামারি, যুদ্ধ এবং জলবায়ু পরিবর্তনে নেতিবাচক প্রভাবে ক্ষতিগ্রস্ত বাংলাদেশের মতো উন্নয়নশীল দেশগুলোকে এসব চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় বিশ্ব ব্যাংকসহ আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোকে সহায়তা জোরদার করার আহŸান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল সোমবার সকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন বিশ্বব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (অপারেশনস্) অ্যাক্সেল ভ্যান ট্রটসেনবার্গ। সাক্ষাতে প্রধানমন্ত্রী এ আহŸান জানান। পরে প্রধানমন্ত্রীর স্পিচ রাইটার মো. নজরুল ইসলাম সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, করোনা মহামারির পর রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ আঘাত হেনেছে। বিশেষ করে জ¦ালানি ও খাদ্যের মূল্য বৃদ্ধি এবং পরিবহন ব্যয় বাড়ার ফলে বাংলাদেশের মতো দেশগুলো বিপাকে পড়েছে। তিনি বলেন, কোভিডের আঘাত করার আগে বাংলাদেশে ৮ শতাংশের বেশি প্রবৃদ্ধি হচ্ছিল। করোনা আঘাত করার পর কিছুটা কমে যায়। এরপর আমরা আস্তে আস্তে উন্নতি করতে থাকি। কিন্তু রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে। জলবায়ু পরিবর্তনে নেতিবাচক প্রভাব মোকাবিলায় উন্নত দেশগুলোকে প্রতিশ্র“তি পূরণের আহŸান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের নেতিবাচক প্রভাবের জন্য উন্নত দেশগুলো দায়ী। তাদের উচিত ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোকে সহায়তা করা। কিন্তু তারা তাদের প্রতিশ্র“তি রাখছে না। নিজস্ব তহবিল থেকে উপক‚লে সবুজ বেস্টনি, টেকসই বাড়ি নির্মাণসহ ক্ষতিগ্রস্ত মানুষগুলোকে বিভিন্ন সহায়তার মাধ্যমে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবিলায় বাংলাদেশের প্রচেষ্টার কথা উলে­খ করেন তিনি। বর্তমান বিশ্ব পরিস্থিতির কথা তুলে ধরে বিশ্বব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (অপারেশনস্) অ্যাক্সেল ভ্যান ট্রটসেনবার্গ বলেন, বাংলাদেশসহ উন্নয়নশীল দেশগুলোর সামনে চ্যালেঞ্জ আছে। চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় এসব দেশকে নতুন প্রজন্মের জন্য কর্মসংস্থান সৃষ্টির ওপর গুরুত্বারোপ করেন তিনি। বিশ্ব ব্যাংক বাংলাদেশকে সহায়তা অব্যহত রাখবে জানিয়ে অ্যাক্সেল ভ্যান ট্রটসেনবার্গ বলেন, ১৯৭২ সালের পর থেকে বিশ্ব ব্যাংক বাংলাদেশের পাশে আছে এবং ভবিষ্যতেও থাকবে। ঢাকা সফর সম্পর্কে বিশ্বব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বলেন, এই সফরের মূল উদ্দেশ্য বাংলাদেশের সঙ্গে অংশীদারিত্বকে আরও শক্তিশালী করা। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের উন্নয়নের প্রশংসা করেন অ্যাক্সেল ভ্যান ট্রটসেনবার্গ বলেন, বিগত সময়ে বাংলাদেশের ব্যাপক উন্নয়ন অবিশ্বাস্য। এ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, জাতির পিতার স্বপ্ন ছিল ক্ষুধা, দারিদ্র্য মুক্ত উন্নত সমৃদ্ধ সোনার বাংলা। মানুষের জন্য অধিকতর উন্নত ও সুন্দর জীবন নিশ্চিত করার মাধ্যমে আমরা সে স্বপ্ন পূরণের চেষ্টা করছি। প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. গওহর রিজভী, প্রধানমন্ত্রীর অ্যাম্বাসেডর অ্যাট লার্জ মোহাম্মদ জিয়াউদ্দিন, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মো. তোফাজ্জল হোসেন মিয়া, সিনিয়র অর্থ সচিব ফাতিমা ইয়াসমিন এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2013-2022 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com