বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ০৮:১০ অপরাহ্ন

রুশ বাহিনীর অগ্রাভিযান- ঘিরে ফেলা হচ্ছে কিয়েভ \ ২৪ ঘণ্টার মধ্যে চূড়ান্ত আঘাত

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • আপডেট সময় শনিবার, ১২ মার্চ, ২০২২

এফএনএস : কিয়েভে এবার চূড়ান্ত আক্রমণের প্রস্তুতি নিয়েছে রাশিয়া। শহরটির দিকে এগোতে থাকা বিশাল রুশ সাঁজোয়া বহর আরও কাছে চলে এসেছে। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক স্যাটেলাইট প্রতিষ্ঠান ম্যাক্সার শুক্রবার জানায়, স্যাটেলাইট ইমেজ পরীক্ষায় দেখা গেছে রুশ ট্যাংক, সাঁজোয়া যান ও আর্টিলারির যে দীর্ঘ সারি দেখা গিয়েছিল তা ভেঙ্গে দিয়ে নতুনভাবে সাজানো হয়েছে। ওই সাঁজোয়া বহরটি এখন ছোট ছোট দলে ভাগ হয়ে কিয়েভ ঘিরে ফেলছে। রুশ সশস্ত্র ইউনিটগুলো কিয়েভের উত্তর-পশ্চিমের আন্তনভ বিমান বন্দরের কাছাকাছি অবস্থান করছে। কিছু কিছু সামরিক যান কিয়েভের পাশের জঙ্গলের ভেতরে অবস্থান নিয়েছে। ওয়াশিংটন ভিত্তিক ইনস্টিটিউট ফর দ্য স্টাডি অব ওয়্যার বলেছে, ২৪ থেকে ৯৬ ঘণ্টার মধ্যে কিয়েভে চূড়ান্ত আঘাত হানতে পারে রাশিয়া। শুক্রবার ব্রিটিশ গোয়েন্দারাও একই ইঙ্গিত করেন। তবে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি শুক্রবার দাবি করেন, রাশিয়ার বিপক্ষে চলমান যুদ্ধে জয়ের পথে রয়েছে ইউক্রেন। নিয়মিত ব্রিফিংয়ে কথা বলতে এসে জেলেনস্কি বলেন,তারা কৌশলগতভাবে এমন একটি অবস্থায় পৌঁছেছেন, যেখান থেকে রাশিয়াকে টেক্কা দিয়ে জয়ী হবেন তারা। তবে জেলেনস্কি সঙ্গে এও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন, চলমান এ যুদ্ধ কতদিন চলবে সে বিষয়টি নিশ্চিত নয়। খবর বিবিসি, রিয়া নভোস্তি, সিএনএন ও আলজাজিরা অনলাইনের। যুদ্ধের ষোড়শ দিন শুক্রবার ইউক্রেনের কয়েকটি নতুন শহরে আক্রমণ করে রুশরা। এদিন দেশটির দেমিদিফ, দিনিপ্রো, লুৎস্ক ও ইভানো-ফ্রাঙ্কিভস্ক শহরে হামলা চালানো হয়। এতে শহরগুলোর বহু স্থাপনা ধ্বংস হয়ে যায়। একই দিন ইউক্রেনের কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ ভলনোভাখা শহর দখলে নেয়ার দাবি করে রুশপন্থী বিচ্ছিন্নতাবাদীরা। রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি মেজর জেনারেল ইগর কোনাশেনকভ বলেন, দোনেৎস্ক পিপলস রিপাবলিকের একদল সেনা ভলনোভাখা শহর মুক্ত করেছে। শুক্রবার মস্কোয় বেলারুশের প্রেসিডেন্ট আলেক্সান্ডার লুকাশেঙ্কোর সঙ্গে বৈঠক করেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ−াদিমির পুতিন। এ সময় বৃহস্পতিবার তুরস্কের আন্তালায়া শহরে অনুষ্ঠিত রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও ইউক্রেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মধ্যে অনুষ্ঠিত বৈঠক নিয়ে উভয় নেতা কথা বলেন। পুতিন বেলারুশের প্রেসিডেন্টকে জানান, আন্তালায়ার বৈঠকে কিছু ইতিবাচক অগ্রগতি হয়েছে। মস্কোর ওপর দফায় দফায় পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞা প্রসঙ্গে পুতিন বলেন, এসব নিষেধাজ্ঞা রাশিয়ার জন্য ইতিবাচক হতে পারে। তার মতে রাশিয়াকে অর্থনৈতিকভাবে মজবুত করার এখনই সময়। পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞায় রুশ অর্থনীতি শক্তিশালী ও প্রযুক্তিতে আরো স্বয়ংসম্পূর্ণ হবে বলে তিনি মনে করেন। এদিকে চলমান পরিস্থিতিতে রাশিয়ার প্রতি ফের সমর্থন পুনব্যক্ত করেছে ভেনিজুয়েলা। দেশটির ভাইস-প্রেসিডেন্ট বৃহস্পতিবার রাশিয়ার প্রতি তার দেশের সমর্থন ঘোষণা করেন। তুরস্কে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক শেষে কারাকাসে অবস্থান নেয়। তুরস্কের আন্তালায়া শহরে বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত বহুল এক বৈঠকে মস্কো প্রথমে কিয়েভকে আত্মসমর্পণের আহবান জানায়। ইউক্রেন সঙ্গে সঙ্গে তা প্রত্যাখ্যান করে। এরপর ইউক্রেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী দিমিত্র কুলেবা রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভের কাছে ২৪ ঘণ্টার যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব করেন। কুলেবার এ প্রস্তাব ক্রেমলিনে সিদ্ধান্ত গ্রহণকারী কর্তৃপক্ষের কাছে পৌঁছে দেয়ার আশ্বাস দেন ল্যাভরভ। ইউক্রেনে রুশ আক্রমণের পঞ্চদশ দিন বৃহস্পতিবার মস্কো জানায়, তাদের বাহিনীর হামলায় ইউক্রেনের নব্বই ভাগ সামরিক বিমান উড্ডয়ন কেন্দ্র (এয়ারফিল্ড) ধ্বংস হয়ে গেছে। রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ইগর কোনাশেনকোভ বৃহস্পতিবার মস্কোয় ব্রিফিংকালে আরও বলেন, এই কয় দিনের রুশ আক্রমণে ইউক্রেনের বিমান প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার উলে−খযোগ্য অংশও অকেজো করা হয়েছে। রুশ সৈন্যরা ইউক্রেনের অন্তত ১৩৭টি বিমান প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ধ্বংস করেছে। এছাড়া ৮১টি রাডার স্টেশন নষ্ট করা হয়ছে। তবে এ বিষয়ে কিয়েভের তাৎক্ষণিক কোন প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। রাশিয়ার ওপর দফায় দফায় পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞার কঠিন জবাব দেয়ার সংকল্প ব্যক্ত করে মস্কো। ক্রেমলিন সাফ জানায়, আমরাও পশ্চিমাদের বিরুদ্ধে একাধিক ব্যবস্থা নেয়ার কথা ভাবছি। এর প্রভাব পড়বে পশ্চিমাদের সবচেয়ে সংবেদনশীল বিষয়গুলোতে। রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা দিমিত্রি বিরিচেভস্কি বলেন, পশ্চিমাদের ওপর রাশিয়ার ব্যবস্থা হবে কঠোর, উদ্বেগজনক ও সংবেদনশীল। লড়াইয়ে ১৬ হাজার বিদেশী স্বেচ্ছাসেবক পাঠাচ্ছেন পুতিন : রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিন পূর্ব ইউক্রেনে রাশিয়ার হয়ে লড়াই করতে মধ্যপ্রাচ্য থেকে স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগের অনুমতি দিয়েছেন। তিনি রাশিয়ার নিরাপত্তা পরিষদকে বলেছেন, যদি দেখেন এই লোকেরা অর্থ ছাড়াই স্বেচ্ছায় ডনবাসের লোকদের সাহায্য করতে আসছে, তবে যুদ্ধ এলাকায় যেতে তারা যা চায়, তা দেয়া উচিত। প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই শোইগু পুতিনকে বলেছেন, মধ্যপ্রাচ্য থেকে ১৬ হাজার স্বেচ্ছাসেবক ডনবাসে আসতে প্রস্তুত রয়েছে। যুদ্ধবিধ্বস্ত সিরিয়ার সরকারী সৈন্যদের ইউক্রেনে যুদ্ধ করার জন্য রাশিয়া অর্থ প্রদান করতে পারে এমন গুঞ্জন রয়েছে। রাশিয়ার বিমানবাহিনী ও বিশেষায়িত কিছু বাহিনী সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের সরকারকে টিকিয়ে রাখতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। নেসেটে ভাষণ দেবেন জেলেনস্কি : ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি ইসরাইলের পার্লামেন্ট নেসেটে বক্তব্য রাখার জন্য দেশটির কাছে আহ্বান জানিয়েছিল। তবে তাৎক্ষণিকভাবে এ ব্যাপারে সাড়া পাননি জেলেনস্কি। তবে নেসেটে নয়, বরং জুম কলে অল্প কয়েকজন ইসরাইলী আইনপ্রণেতার সঙ্গে বৈঠকের অনুমতি দেয়া হয়েছিল। ইউক্রেনের ল্যাব থেকে ছড়িয়ে পড়তে পারে উচ্চ ঝুঁকির প্যাথোজেন : যুদ্ধের ডামাডোলে ইউক্রেনের ল্যাবে থাকা উচ্চ ঝুঁকির প্যাথোজেন সাধারণ মানুষের মধ্যে ছড়িয়ে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করেছে বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। ফেসবুকের কান্ড : ফেসবুকে বিদ্বেষমূলক পোস্ট দেয়া নিষিদ্ধ হলেও সেই নিয়ম কয়েকটি দেশের ক্ষেত্রে কিছুটা শিথিল করে রুশ সেনাদের বিরুদ্ধে সহিংস প্রতিরোধের আহ্বান জানানোর সুযোগ দেয়া হচ্ছে। ফেসবুকের মূল কোম্পানি মেটার একটি অভ্যন্তরীণ ই-মেইলের বরাতে খবরে বলা হয়েছে, রাশিয়া, ইউক্রেন ও পোল্যান্ডসহ কয়েকটি দেশে ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারকারীদের জন্য ‘হেইট স্পিচ পলিসিতে’ এই পরিবর্তন আনা হচ্ছে। সেই সুযোগ নিয়ে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিন এবং বেলারুশের প্রেসিডেন্ট আলেক্সান্ডার লুকাশেঙ্কোর মৃত্যু কামনা করেও পোস্ট দিতে পারবেন ব্যবহারকারীরা।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2013-2022 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com