বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ০২:০২ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
সাতক্ষীরার ঘরে ঘরে চোখ ওঠা রোগের প্রাদুর্ভাব \ আতঙ্ক নয় \ সাবধানতা ও সতর্কতা জরুরী দূর্গা উৎসব বাঙ্গালীর সার্বজনীন উৎসবে পরিনত হয়েছে -খুলনা রেঞ্জ ডিআইজি ড. খন্দকার মহিদ উদ্দীন ইভিএমে আঙুলের ছাপ না মিললে ভোটদানের বিষয়ে আইনে সংশোধনী আসছে জেলা লিগ্যাল এইড কমিটির নিয়মিত মাসিক সভা ভার্চুয়ালী অনুষ্ঠিত ঢাকার পথে প্রধানমন্ত্রী অষ্টমীতে সাতক্ষীরার মন্ডপে মন্ডপে উপচে পড়া ভিড় \ আজ মহানবমী সাতক্ষীরায় বিজিবির অভিযানে অস্ত্র সহ আটক ১ সকল ধর্মের মানুষ শান্তিপূর্ণ ভাবে ধর্মীয় অনুষ্ঠান পালন করছে -আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম সাতক্ষীরায় বিশ্ব বসতি দিবস উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত দেবহাটায় উৎসবমূখর পরিবেশে চলছে দূর্গোৎসব

রেলের সব এলাকাকে ধূমপানমুক্ত ঘোষণা

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • আপডেট সময় বুধবার, ৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২২

এফএনএস: রেলপথমন্ত্রী মো. নূরুল ইসলাম সুজন বলেছেন, রেলওয়ে স্টেশন, প্ল্যাটফর্ম এবং ট্রেনের কামরাসহ সব এলাকাকে ধূমপান ও তামাকমুক্ত ঘোষণা করা হয়েছে। কেউ আইন না মানলে শাস্তির আওতায় আনা হবে। বুধবার রেলভবনে মন্ত্রণালয়ের গৃহীত ‘ইনিশিয়েটিভ টু মেক বাংলাদেশ রেলওয়ে টোব্যাকো ফ্রি’ শীর্ষক প্রকল্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন। রেলপথমন্ত্রী আরও বলেন, শুধু আইন করে ও প্রচারণা বাড়িয়ে এটি বন্ধ করা সম্ভব নয়, যদি তামাকের উৎস বন্ধ করা না যায়। তিনি উলে­খ করেন, রেলওয়েতে প্রকাশ্যে বিড়ি-সিগারেট খাওয়া নিষেধ। রেল ভ্রমণের শুরুতেই যাত্রী যাতে তামাক জাতীয় দ্রব্য নিয়ে ট্রেনে ভ্রমণ করতে না পারেন, তার জন্য উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে। মাঠ পর্যায়ে পরিকল্পনা নিয়ে সংশ্লিষ্ট সবার সহযোগিতায় এটি কার্যকর করা হবে বলে মন্ত্রী জানান। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক আন্তর্জাতিক সংস্থা ‘দ্য ইউনিয়ন’ এর অর্থায়নে সম্পূর্ণ অনুদানের ভিত্তিতে রেলপথ মন্ত্রণালয় এ প্রকল্প গ্রহণ করেছে। এই প্রকল্পের উদ্দেশ্য হচ্ছেÑ শিশু, নারী, অসুস্থ ব্যক্তি, অন্তঃসত্ত¡া নারীসহ অধূমপায়ী যাত্রীদের পরোক্ষ ধূমপানের ক্ষতি থেকে সুরক্ষা প্রদান, পানের পিক মুক্ত স্বাস্থ্যকর পরিবেশ নিশ্চিত করার লক্ষ্যে রেল স্টেশন ও ট্রেনের অভ্যন্তরে পান- জর্দা, সাদাপাতার ব্যবহার নিষিদ্ধ করা। তামাক ও ধূমপানমুক্ত রেলওয়ে গড়ে তোলা এবং প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী, ২০৪০ সালের মধ্যে তামাকমুক্ত বাংলাদেশ গড়ে তোলার ক্ষেত্রে এ প্রকল্প সহায়ক ভ‚মিকা পালন করবে। প্রকল্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রিসোর্স পারসন হিসেবে বক্তব্য রাখেনÑ বাংলাদেশ ক্যান্সার সোসাইটির প্রকল্প পরিচালক ডা. গোলাম মহিউদ্দিন ফারুক, মাদকদ্রব্য ও নেশা নিরোধ সংস্থা (মানষ) এর প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি অধ্যাপক ডা. অরূপ রতন চৌধুরী, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (মাদক অনুবিভাগ) ইসরাত চৌধুরী, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের জাতীয় তামাক নিয়ন্ত্রণ সেলের সমন্বয়কারী (অতিরিক্ত সচিব) হোসেন আলী খন্দকার, দ্য ইউনিয়ন- এর টেকনিক্যাল কনসালটেন্ট মো. হামিদুর রহমান খান (যুগ্ম সচিব)। এ প্রকল্পের কার্যক্রম উপস্থাপনা করেন রেলপথ মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব জালাল উদ্দিন আহমেদ। এ সভায় সভাপতিত্ব করেন রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. মো. হুমায়ুন কবীর, বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক ধীরেন্দ্রনাথ মজুমদারসহ রেলপথ মন্ত্রণালয় ও বাংলাদেশ রেলওয়ের কয়েকজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বক্তব্য রাখেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2013-2022 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com