মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই ২০২২, ০৩:০১ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::

লা লিগা \ ওসাসুনাকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে বার্সেলোনা

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • আপডেট সময় সোমবার, ১৪ মার্চ, ২০২২

এফএনএস স্পোর্টস: লা লিগায় নিজেদের দুর্দান্ত ফর্ম ধরে রেখে বড় জয় তুলে নিয়েছে বার্সেলোনা। রোববার ওসাসুনাকে ৪-০ গোলে বিধ্বস্ত করে শীর্ষ চারের অবস্থান মজবুত করেছে কাতালান জায়ান্টরা। ক্যাম্প ন্যু’র ম্যাচটিতে জোড়া গোলে করেছেন ফেরান তোরেস। বাকি দুই গোল এসেছে পিয়েরে-এমেরিক অবামেয়াং ও রিকুই পুইগের কাছ থেকে। তিনদিন আগে ইউরোপা লিগের শেষ ১৬’র প্রথম লেগের ম্যাচে তুরষ্কের জায়ান্ট গ্যালাতাসারের সাথে গোলশুন্য ড্র করে হতাশ করেছিল বার্সা। কিন্তু কাল ম্যাচ শুরুর ৩০ মিনিটেরও কম সময়ের মধ্যে তিন গোল করা কাতালানরা লা লিগা টেবিলের মাঝামাঝিতে থাকা ওসাসুনাকে দাঁড়াতেই দেয়নি। এই জয়ে ২৭ ম্যাচে ৫১ পয়েন্ট নিয়ে এক ম্যাচ বেশী খেলা বর্তমান চ্যাম্পিয়ন এ্যাথলেটিকো মাদ্রিদকে গোল ব্যবধানে পিছনে ফেলে টেবিলের তৃতীয় স্থানটি ধরে রেখেছে জাভির দল। দ্বিতীয় স্থানে থাকা সেভিয়ার থেকে বার্সেলোনা ও এ্যাথলেটিকো পাঁচ পয়েন্ট পিছিয়ে আছে। এই দুই দলের থেকে ১২ পয়েন্ট এগিয়ে টেবিলের শীর্ষস্থানটি দখল করে আছে রিয়াল মাদ্রিদ। আগামী রোববার সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে মৌসুমের দ্বিতীয় এল ক্ল্যাসিকোতে রিয়াল মাদ্রিদের আতিথেয়তা নিবে বার্সা। বৃহস্পতিবার ঘরের মাঠে গ্যালাতাসারের সাথে গোলশুন্য ড্র করার আগে সব ধরনের প্রতিযোগিতায় গত চারটি ম্যাচে ১৪ গোল করেছে বার্সেলোনা। কাল ম্যাচ শেষে দুই গোল করা তোরেস বলেন, ‘ইউরোপা লিগের ম্যাচটিতে আমরা মোটেই প্রত্যাশানুযায়ী খেলতে পারিনি, এটা সবাই জানে। কিন্তু আজ (গতকাল) আবারো পুরো দল ফিরে এসেছে। যখন একের পর এক সুযোগ তৈরী হতে থাকবে তখন স্বাভাবিক ভাবেই গোলের সংখ্যা বাড়ারও সুযোগ থাকে।’ গাভির ফাউলের বিপরীতে প্রাপ্ত পেনাল্টি থেকে ১৪ মিনিটে স্বাগতিকদের এগিয়ে দেন ম্যানচেস্টার সিটির সাবেক স্ট্রাইকার তোরেস। সাত মিনিট পর ওসমানে ডেম্বেলের দারুন এক থ্রু বলে ব্যবধান দ্বিগুন করেন এই তরুন স্প্যানিয়ার্ড। ২৭ মিনিটে অবামেয়াংয়ের গোলের যোগানদাতাও ছিলেন ডেম্বেলে। ডানদিক থেকে তার নিখুঁত ক্রসে অবামেয়াং ব্যবধান ৩-০’তে নিয়ে যান। আর্সেনাল থেকে ক্যাম্প ন্যুতে আসার পর ছয় ম্যাচে এটি অবামেয়াংয়ের পঞ্চম গোল। ২০০৪ সালে স্যামুয়েল ইতো ও ২০০৯ সালে জ্লাটান ইব্রাহিমোভিচের পর ক্লাবে যোগ দেবার দ্রুততম সময়ের মধ্যে তৃতীয় খেলোয়াড় হিসেবে পাঁচ গোল করলেন অবামেয়াং। ৭৫ মিনিটে দলের হয়ে চতুর্থ গোলটি করেন পুইগ। বার্সেলোনার অভিজ্ঞ ডিফেন্ডার জেরার্ড পিকে এই ম্যাচের মাধ্যমে ক্লাবের হয়ে ৬০০তম ম্যাচ খেলার মাইলফলক স্পর্শ করলেন। ৫৫ মিনিটে তার দেয়া গোলটি অফসাইড না হলে ব্যবধান হয়ত আরো বাড়তে পারতো। এনিয়ে টানা ১০ম ম্যাচে অপরাজিত রয়েছে জাভি হার্নান্দেজের দল। জানুয়ারিতে কোপা ডেল রে’র শেষ ১৬‘তে সর্বশেষ পরাজিত হয়েছিল কাতালান জায়ান্টরা। কাল ম্যাচ শেষে জাভি বলেছেন, ‘গ্যালাতাসারের বিপক্ষে আমরা মাঠে নিজেদের খুঁজে পাইনি। তার ফলও পেয়েছি। কিন্তু আজ পুরো দল একেবারেই ভিন্ন আবহে খেলেছে। পুরো মৌসুমে এটি আমাদের অন্যতম সেরা ম্যাচ। বড় এই জয়ে সামনে এগিয়ে যাবার আরো বেশী আত্মবিশ্বাস আমরা পেয়েছি।’

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2013-2022 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com