মঙ্গলবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৯:৩৮ অপরাহ্ন

শঙ্কা কাটিয়ে রেকর্ড গড়া জয় পেলো পাকিস্তান

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • আপডেট সময় শুক্রবার, ২১ জুলাই, ২০২৩

এফএনএস স্পোর্টস: ক্রিজে গিয়ে প্রথম বলেই ডাউন উইকেটে এসে উড়িয়ে মারলেন আঘা সালমান। হাওয়ায় ভেসে বল সীমানা ছাড়া হতেই তার মুখে চওড়া হাসি। অপর প্রান্ত থেকে ছুটে এসে তাকে আলিঙ্গনে জড়ালেন ইমাম-উল-হক। জয়ের একদম কাছে গিয়ে টপাটপ দুই উইকেট হারিয়ে বেধে গিয়েছিল বিপত্তি। শেষ পর্যন্ত সালমানের ওই শটেই স্বস্তি। এই জয় পাকিস্তানকে এনে দিল একটি রেকর্ডও। ১৩১ রানের লক্ষ্য তাড়ায় আগের দিন শেষ বিকেলে তিন উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়ে গিয়েছিল পাকিস্তান। তবে বৃহস্পতিবার শেষ দিনে তাদেরকে বড় চাপে ফেলতে পারেনি শ্রীলঙ্কা। দিনের শুরুটা হয় প্রথম বলের বাউন্ডারিতে, ম্যাচের শেষ সালমানের ওই ছক্কায়। গল টেস্টে ৪ উইকেটের জয়ে দুই ম্যাচের সিরিজে এগিয়ে গেল পাকিস্তান। এই জয়ে প্রথম সফরকারী দল হিসেবে শ্রীলঙ্কায় ১০টি টেস্ট জিতল পাকিস্তান। ছাড়িয়ে গেল তারা ৯ জয় পাওয়া ইংল্যান্ড ও ভারতকে। আগের দিন বোলারদের দুর্দান্ত পারফরম্যান্স পাকিস্তানকে গড়ে দেয় জয়ের মঞ্চ। তবে ছোট রান তাড়ায় ৩৮ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে শঙ্কায় পড়ে যায় তারা। শেষ দিনে অবশ্য ইমাম ও বাবর আজমের জুটি দিনের শুরুতে একটু একটু করে সরিয়ে দেয় চাপ। দিনের প্রথম বলটিই আলগা পেয়ে বাউন্ডারিতে পাঠান বাবর। প্রথম ওভারে পাকিস্তান অধিনায়কের ব্যাট থেকে বাউন্ডারি আসে আরেকটি। পরের ওভারে আরেকটি চার মারেন তিনি ক্রিজ ছেড়ে বেরিয়ে। বাবরকে ২৪ রানে এলবিডবিøউ করে আবার শ্রীলঙ্কার আশা কিছুটা জাগিয়ে তোলেন প্রবাথ জয়াসুরিয়া। তবে ইমাম ও সাউদ শাকিলের জুটি লঙ্কানদের আশা মাড়িয়ে পাকিস্তানকে নিয়ে যায় জয়ের কাছে। বাবরের বিদায়ের পরপরই রমেশ মেন্ডিসকে ছক্কায় ওড়ান ইমাম, ওই ওভারেই কাট শটে চার মেরে শুরু করেন শাকিল। জয়ের কাছে গিয়ে রানের গতি বাড়ান শাকিল। তবে প্রথম ইনিংসে অসাধারণ এক অপরাজিত ডাবল সেঞ্চুরি করা ব্যাটসম্যান দলের জয়কে সঙ্গী করে ফিরতে পারেননি। রমেশ মেন্ডিসের টার্নিং ডেলিভারিতে তিনি বিদায় নেন ৩০ রানে। কাজ শেষ করতে না পারলেও বিশের নিচে আউট না হওয়ার ধারা ধরে রাখতে পারলেন শাকিল। টেস্ট ক্যারিয়ারে আবির্ভাবেই অসাধারণ খেলতে থাকা ২৭ বছর বয়সী বাঁহাতি ব্যাটসম্যান এখনও পর্যন্ত খেলেছেন ১২ ইনিংস, তার সর্বনিম্ন রান ২২। এই টেস্টের প্রথম ইনিংস শেষে তার ব্যাটিং গড় ছিল ৯৮.৫০। দ্বিতীয় ইনিংসের পর তা কমে হয়েছে ৯০.৮৮। শাকিলের পর সরফরাজ আহমেদকেও বিদায় করে দেন জয়াসুরিয়া। পরের বলেই সালমানের ছক্কায় ম্যাচের ইতি। এক প্রান্ত আগলে রেখে ওপেনার ইমাম অপরাজিত থেকে যান ৫০ রানে। ম্যাচের সেরা সাউদ শাকিল। সিরিজের পরের ম্যাচ সোমবার থেকে কলম্বোর সিংহলিজ স্পোর্টস ক্লাব মাঠে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
শ্রীলঙ্কা ১ম ইনিংস: ৩১২
পাকিস্তান ১ম ইনিংস: ৪৬১
শ্রীলঙ্কা ২য় ইনিংস: ২৭৯
পাকিস্তান ২য় ইনিংস: (লক্ষ্য ১৩১, আগের দিন ৪৮/৩) ৩২.৫ ওভারে ১৩৩/৬ (শফিক ৮, ইমাম ৫০*, মাসুদ ৭, নুমান ০, বাবর ২৪, শাকিল ৩০, সরফরাজ ১, সালমান ৬*; বিশ্ব ২-১-৬-০, রমেশ মেন্ডিস ১৪-১-৬২-১, জয়াসুরিয়া ১৪.৫-০-৫৬-৪, ধনাঞ্জয়া ২-১-২-০)।
ফল: পাকিস্তান ৪ উইকেটে জয়ী।
সিরিজ: ২ ম্যাচ সিরিজে পাকিস্তান ১-০তে এগিয়ে।
ম্যান অব দা ম্যাচ: সাউদ শাকিল।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2013-2022 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com