রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ০২:০০ অপরাহ্ন

শেখ হাসিনা ফের আ. লীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • আপডেট সময় রবিবার, ২৫ ডিসেম্বর, ২০২২

এফএনএস: বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি পদে পুনরায় নির্বাচিত হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল শনিবার বিকেলে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশনে শেখ হাসিনাকে সভাপতি নির্বাচিত করেন আওয়ামী লীগের সারাদেশের প্রতিনিধিরা। দলটির নেতৃত্ব নির্বাচনের রেওয়াজ অনুযায়ী, সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশনে প্রথমে সভাপতির নাম প্রস্তাব করেন একজন নেতা। পরে আরেকজন নেতা তা সমর্থন করেন। সবার কণ্ঠভোটে সেটি পাস (অনুমোদন) হয়। এবারও তার ব্যতিক্রম হয়নি। বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনাকে সভাপতি হিসেবে ‘অবিকল্প’ মনে করেন দলের সর্বস্তরের নেতাকর্মীরা। ফলে নেতাকর্মীদের আস্থা ও ভালোবাসায় দশম বারের মতো আওয়ামী লীগের সভাপতির দায়িত্ব পেলেন শেখ হাসিনা। অন্যদিকে সাধারণ সম্পাদক পদে পুনরায় নির্বাচিত হয়েছেন ওবায়দুল কাদের। এ পদে হ্যাটট্রিক করলেন ওবায়দুল কাদের। এর আগে সকাল সাড়ে ১০টায় শুরু হওয়া প্রথম অধিবেশন শেষ হয় দুপুর সোয়া ১টায়। দলের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বক্তব্যের মধ্যদিয়ে প্রথম অধিবেশন শেষ হয়। সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশনে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময় কাউন্সিলরদের বক্তব্যের জন্য মঞ্চ উন্মুক্ত করে দেন আওয়ামী লীগ সভাপতি। একেক বিভাগ থেকে কাউন্সিলররা বক্তব্য দেন। এরপরও কোনো কাউন্সিলর বাদ থাকলে বর্ধিত সভার আয়োজন করা হবে। সেখানে তিনি তার বক্তব্য উপস্থাপন করবেন। এদিকে আওয়ামী লীগের ২২তম সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশনে দলটির আর্থিক প্রতিবেদন, গঠনতন্ত্র ও ঘোষণাপত্র পাস করা হয়। শেখ হাসিনার সঞ্চালনায় কাউন্সিল অধিবেশনে কাউন্সিলরদের বক্তব্যের পর আর্থিক প্রতিবেদন পেশ করা হয়। আর্থিক প্রতিবেদন তুলে ধরেন কোষাধ্যক্ষ এইচ এন আশিকুর রহমান। পরে এটি কণ্ঠভোটে পাস হয়। পরে সংশোধিত ঘোষণাপত্র তুলে ধরেন প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম। এটিও কণ্ঠভোটে পাস হয়। এটিতে প্রয়োজনে পরবর্তী কমিটি সংশোধন করতে পারবে। এমন অনুমোদনও নেওয়া হয়। এরপরে সংশোধিত গঠনতন্ত্র তুলে ধরেন দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. আবদুর রাজ্জাক। এটিও কণ্ঠভোটে পাস হয়। সংশোধন হলো- জেলা ও উপজেলায় সভাপতি সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ার পর ৪৫ দিনের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ কমিটি করতে হবে। না পারলে ওই কমিটি বাতিল হবে। এ ছাড়া উপজেলা পর্যায়ে ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন দেওয়া হবে না। প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ। এ দলের হাত ধরেই স্বাধীন-সার্বভৌম রাষ্ট্র বাংলাদেশের সৃষ্টি। দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি সময় ক্ষমতার মসনদেও দলটি। এ দেশের সবচেয়ে বেশি উন্নয়ন-অগ্রযাত্রাও আওয়ামী লীগের হাত ধরে। টানা তিন মেয়াদে ক্ষমতায় থাকা দলটির চোখ এখন আগামী জাতীয় নির্বাচনে। তার ঠিক এক বছর আগে ২২তম জাতীয় সম্মেলন করছে দলটি। স্বাভাবিকভাবেই ক্ষমতাসীন দলটির নেতৃত্ব নিয়ে কৌতূহল সবার মধ্যে। তবে ১৯৮১ সালের পর থেকে আওয়ামী লীগের সভাপতি পদ নিয়ে কৌতূহল নেই। বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনাকে ‘অবিকল্প’ মনে করেন দলের সর্বস্তরের নেতাকর্মীরা। আর টানা তৃতীয় মেয়াদে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন ওবায়দুল কাদের। নতুন কমিটিতে যারা রয়েছেন: আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য হয়েছেন বেগম মতিয়া চৌধুরী এমপি, শেখ ফজলুল করিম সেলিম এমপি, কাজী জাফর উল­াহ, ইঞ্জি. মোশারফ হোসেন এমপি, শ্রী পীযুষ কান্তি ভট্টাচার্য্য, নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি, ড. মো. আবদুর রাজ্জাক এমপি, লে. কর্নেল (অব.) মুহাম্মদ ফারুক খান এমপি, মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, শাজাহান খান এমপি, জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান, এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন, মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীর বিক্রম, অ্যাড. কামরুল ইসলাম এমপি, সিমিন হোসেন রিমি। যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক পদে রয়েছেন মাহবুবউল আলম হানিফ এমপি, ডা. দীপু মনি এমপি, ড. হাছান মাহমুদ এমপি, আ. ফ. ম. বাহাউদ্দিন নাছিম। কোষাধ্যক্ষ এইচ. এন. আশিকুর রহমান এমপি। সম্পাদকমণ্ডলী হলেন- অর্থ ও পরিকল্পনা বিষয়ক সম্পাদক ওয়াসিকা আয়শা খান এমপি, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. শাম্মী আহমেদ, আইন বিষয়ক সম্পাদকঃ অ্যাডভোকেট নজিবুল­াহ হিরু, কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলী, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ড. সেলিম মাহমুদ, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ এমপি, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মোঃ আবদুস সবুর, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক জাহানারা বেগম, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস এমপি, শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক শামসুন নাহার চাঁপা, শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক মোঃ সিদ্দিকুর রহমান, সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক শ্রী অসীম কুমার উকিল এমপি, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা, এছাড়া শ্রম ও জনশক্তি বিষয়ক সম্পাদক ও যুব ও ক্রীড়া সম্পাদকের পদ দুটি খালি রয়েছে। সাংগঠনিক সম্পাদকগণ হলেন -আহমদ হোসেন, বি. এম মোজাম্মেল হক, আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এমপি, এস. এম কামাল হোসেন, মির্জা আজম এমপি, অ্যাডভোকেট আফজাল হোসেন, শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল, সুজিত রায় নন্দী। উপ-দপ্তর সম্পাদক সায়েম খান, উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক পদটি খালি রয়েছে। আর সদস্যদের নির্বাচিত করতে প্রেসিডিয়াম সভায় নির্বাচন হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2013-2022 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com