রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ০৬:১৬ অপরাহ্ন

সাতক্ষীরায় সরকারি প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ২০ মে ও ৩ জুন \ মোট পরীক্ষার্থী ২৬২৮৩ জন \ কেন্দ্রের সংখ্যা-২০

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • আপডেট সময় রবিবার, ৮ মে, ২০২২

স্টাফ রিপোর্টার ঃ সাতক্ষীরা জেলার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা দুইধাপে আগামী ২০ মে ও ৩ জুন ২০২২ তারিখে অনুষ্ঠিত হবে। সাতক্ষীরা শহরের ২০টি কেন্দ্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। পরীক্ষার সময় সকাল ১১টা হতে ১২টা পর্যন্ত। সাতক্ষীরা জেলার সর্বমোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ২৬২৮৩ জন প্রথম পর্যায়ে ২০ মে সাতক্ষীরা সদর উপজেলা, দেবহাটা, কলারোয়া ও কালিগঞ্জ উপজেলার ১৩৬৪০ জন পরীক্ষার্থীর পরীক্ষা গ্রহন করা হবে এবং দ্বিতীয় পর্যায়ে ৩ জুন আশাশুনি, শ্যামনগর ও তালা উপজেলার ১২৬৪৩ জন পরীক্ষার্থীর পরীক্ষা গ্রহন করা হবে বলে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস নিশ্চিত করেছে। যে সকল কেন্দ্রে পরীক্ষা গ্রহন করা হবে সেগুলো হচ্ছে পলাশপোল আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়, নবজীবন ইন্সটিটিউট, নব জীবন পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট, সাতক্ষীরা পুলিশ লাইন মাধ্যমিক বিদ্যালয়, রসুলপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়, সাতক্ষীরা সিটিকেলজ, সরকারি পলিটেকনিক স্কুল ও কলেজ, সাতক্ষীরা কালেক্টরেট স্কুল এন্ড কলেজ, সাতক্ষীরা সরকারি বালিকা বিদ্যালয়, সাতক্ষীরা পি,এন মাধ্যমিক বিদ্যালয়, সাতক্ষীরা দিবা নৈশ কলেজ, নবারুন উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়, সাতক্ষীরা সরকারি মহিলা কলেজ (বিজ্ঞান ভবন), সাতক্ষীরা সরকারি মহিলা কলেজ (কলা ভবন), সাতক্ষীরা পল­ীমঙ্গল স্কুল এন্ড কলেজ, সাতক্ষীরা সরকারি কলেজ (কলা ভবন), সাতক্ষীরা সরকারি কলেজ (বিজ্ঞান ভবন) ও সাতক্ষীরা সরকারি কলেজ (বাণিজ্য ভবন) পরীক্ষার্থীদের অবশ্য পালনীয়:- পরীক্ষার্থীকে পরীক্ষায় অংশগ্রহনের জন্য প্রবেশপত্র ও জাতীয় পরিচয় পত্র অবশ্যই সঙ্গে আনতে হবে। পরীক্ষা শুরু হওয়ার ১ ঘন্টা পূর্বে পরীক্ষার্থীকে নির্দিষ্ট আসন গ্রহন করতে হবে এবং পরীক্ষা সমাপ্ত না হওয়া পর্যন্ত কক্ষ ত্যাগ করতে পারবে না। পরীক্ষার্থীকে পরীক্ষা কক্ষে অবস্থান কালে উভয় কান উন্মুক্ত রাখতে হবে। প্রবেশ পত্রে নির্ধারিত ও এমআর এর সেট কোড ব্যতীত অন্য সেটকোডে পরীক্ষা দিলে উভয় পত্রটি বাতিল বলে গন্য হবে। পরীক্ষার্থীগন প্রশ্ন সাথে নিয়ে যেতে পারবেন না। সতর্কতা:- এই পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে কিছু স্বার্থান্বেষী মহল ফেইসবুক সহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রশ্ন পত্র ফাঁস ভূয়া প্রশ্নপত্র বিক্রির অপচেষ্টা চালাচ্ছে। এদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীকে ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য কর্তৃপক্ষ নির্দেশনা প্রদান করেছেন। কেউ এ ধরনের অপপ্রচারের প্রয়াস চালালে তার বিরুদ্ধে আইসিটি এ্যাক্টে মামলা সহ কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক নিয়োগ কার্যক্রম সম্পূর্ণ স্বচ্ছতা ও নিরপেক্ষতার সাথে সম্পন্ন করা হয়। কেউ প্রশ্নপত্র ফাঁস ও ভূয়া প্রশ্নপত্র বিক্রির গুজব ছড়ালে বা ছড়ানোর চেষ্টা করলে তাকে নিকটস্থ থানায় সোপর্দ করা অথবা থানা বা গোয়েন্দা সংস্থাকে অবহিত করার জন্য প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর হতে অনুরোধ করা হয়েছে। সাতক্ষীরা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো: রুহুল আমীন জানান, ২০২০ সালের ১৮ অক্টোবর তারিখের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির আলোকে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরাধীন সহকাারী শিক্ষক এবং জাতীয় করনকৃত সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পিইডিপি-৪এর আওতায় প্রাক প্রাথমিক শ্রেনির জন্য রাজস্ব খাতে সৃষ্ট ‘সহকারী শিক্ষক” পদে এই নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2013-2022 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com