সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৫:৪২ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
পঞ্চগড়ে নৌকাডুবি: ২৪ জনের লাশ উদ্ধার, নিখোঁজ অনেকে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ আজ বিশ্বের রোল মডেল \ মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক এমপি সাতক্ষীরা মেডিকেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন দগ্ধ রোগীদের দেখতে যান নাগরিক কমিটির নেতৃবৃন্দ সিন্ডিকেটের কারসাজিতে অস্বাভাবিক বেড়েছে রড ও সিমেন্টের দাম নিউইয়র্ক থেকে ওয়াশিংটন ডিসি পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রীকে মুক্তিযোদ্ধা সন্তান সংসদের ফুলেল শুভেচ্ছা প্রদান প্রাইভেট ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক ওনার্স এসোঃ’র কমিটি গঠন সাতক্ষীরায় এমপি রবি ফুটবল টুর্নামেন্টের প্রথম রাউন্ডের শেষ খেলায় \ সাতক্ষীরা সদরকে হারিয়ে ধুলিহর ইউনিয়নের জয়লাভ কালিগঞ্জে ভগ্নিপতি হত্যা মামলা \ প্রধান আসামী ফজর আলী আটক ৪ বিভাগে বৃষ্টি বাড়তে পারে, উত্তরে কমতে পারে তাপমাত্রা

সাতক্ষীরায় স্ত্রী হত্যার অভিযোগে স্বামী আজগার আলীর মৃত্যুদন্ড

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • আপডেট সময় সোমবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২

আদালত প্রতিবেদক \ যৌতুকের টাকা না পেয়ে স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগে দোসী সাব্যস্ত করে ঘাতক স্বামী আজগার আলীকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদন্ড কার্যকর করার আদেশ দিয়েছেন সাতক্ষীরার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালের বিচারক এমজি আজমের আদালত। গতকাল বিজ্ঞ বিচারক এই আদেশ প্রদান করেন। আশি হাজার টাকা যৌতুকের দাবীতে সাতক্ষীরা শহরের সুলতানপুরের এন্তাজ আলীর পুত্র ফাঁসির দন্ড প্রাপ্ত আজগার আলী নিজ স্ত্রী রেহেনা পারভীনকে হত্যা করে। আসামী পলাতক থাকায় রায় ঘোষনার সময় আদালতের কাঠগড়ায় ছিলেন না। মামলার বিবরনে জানা যায় ১৯৯৪ সালে সুলতানপুরের এন্তাজ আলীর পুত্র আজগার আলীর সাথে সদর উপজেলার গোবরদাড়ি গ্রামের আঃ মান্নানের কন্যা রেহেনা পারভীনের বিবাহ হয়। বিয়ের কয়েকমাস ব্যবধানে স্বামী সহ পরিবারের সদস্যরা যৌতুকের দাবীতে রেহেনার উপর বিভিন্ন সময় অত্যাচার ও নির্যাতন চালিয়ে আসছিল। এক পর্যায়ে পিত্রালয় হতে অন্তত ৮০ হাজার টাকা আনার কথা বলে­ রেহেনা অপরাগত প্রকাশ করলে ১৯৯৭ সালের ২০ এপ্রিল বিকাল তিনটা থেকে চারটার মধ্যে রেহেনাকে পিটিয়ে হত্যা করে। এঘটনায় নিহতের চাচা শওকত আলী সরদার বাদী হয়ে ৫ জনের নাম উলে­খ করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করে। বিজ্ঞ আদালত আসামীদের বিরুদ্ধে সমন জারির নির্দেশ দেন। ১৯৯৮ সালে আসামী আজগার আলী ও তার ভাই রুহুল কুদ্দুসের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ১০ (ক) ধারায় অভিযোগ গঠন করে। মামলা চলাকালীন সময়ে রুহুল কুদ্দুস মৃত্যু বরন করেন। আসামী আজগর আলী পলাতক থাকেন। গতকাল রায় ঘোষনার সময় ও পলাতক ছিল। মামলার নথি ১২ জন সাক্ষীর জেরা ও জবানবন্দী পর্যালোচনা শেষে পলাতক আসামী আজগার আলীর বিরুদ্ধে স্ত্রীকে নির্যাতন চালিয়ে হত্যার অভিযোগ সন্দেহাতীত ভাবে প্রমানীত হওয়ায় বিজ্ঞ বিচারক এমজি আজম এর আদালত তাকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদন্ড কার্যকর করার নির্দেশ দেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2013-2022 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com