রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১১:১১ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
সাতক্ষীরার স্বর্ণ কন্যা সাবিনাকে শুভেচ্ছা জানালো জেলাবাসি দৃষ্টিপাত সম্পাদকের সহধর্মিনী আনোয়ারা বেগম এর ১ম মৃত্যুবার্ষিকতে আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠিত রোহিঙ্গা ইস্যুতে আন্তর্জাতিক স¤প্রদায়কে বাস্তবভিত্তিক পদক্ষেপ নেওয়ার আহŸান প্রধানমন্ত্রীর প্রচুর অর্থ ব্যয়েও ঠেকানো যাচ্ছে না নদীভাঙন সাতক্ষীরা জেলা মন্দির সমিতির নবগঠিত কমিটির অভিষেক শ্যামনগরে গাঁজাসহ ৪ মাদক ব্যবসায়ী আটক সাতক্ষীরায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে আ’লীগ নেতা কে মারপিট ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ক্ষয়ক্ষতি \ থানায় মামলা সব বিভাগেই বৃষ্টির আভাস আশাশুনি মটর সাইকেল চালক সমিতির নির্বাচন সম্পন্ন \ শাহেদ সভাপতি, ফেরদৌস সেক্রেটারী নির্বাচিত নাজিমগঞ্জে পূজার কেনাকাটা জমে উঠেছে

সাতক্ষীরা খ্রীষ্টান গীর্জার সামনে রাস্তার কালভাট দীর্ঘদিন ভঙ্গুর \ যাত্রী সাধারনের দুর্ভোগ চরমে

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • আপডেট সময় রবিবার, ৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২২

স্টাফ রিপোর্টার ঃ সাতক্ষীরা শহরের চালতেতলা মিশনের সামনে সড়কে কালভাটটি দীর্ঘদিন ভঙ্গুর যাত্রী সাধারন দুর্ভোগ চরমে। খোজ খবর নিয়ে জানাগেছে, শহরের পৌরসভা ৪নং ও পাঁচ নং ওয়ার্ডের সীমান্তে সাতক্ষীরা মিশন সংলগ্ন চালতেতলা এলাকার রাস্তার একটি কালভাট দীর্ঘদিন ধরে ভেঙ্গে বিকল হয়ে আছে। অথচ ঐ রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন শহর আসতে হয় কয়েক হাজার মানুষের। বিশেষ করে ঐ রাস্তার অতি সন্নিকটে চালতে তলা বাজার, কারিমা মাধ্যমিক বিদ্যালয়, মিশন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এখানেই শেষ নয় ঐখানেই খ্রীষ্টান ধর্মাবলম্বীর প্রধান ধর্মীয় উপসালয় গীর্জার এখানেই শেষ নয় সাতক্ষীরা ব্যাংদহা সড়কের প্রধান যোগাযোগের মাধ্যম এটি। এ রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন ফিংড়ি ইউনিয়ন সহ পাশ্ববর্তি এলাকা থেকে শত শত মানুষ প্রয়োজনীয় কাজে শহরে আসেন। জেলার খ্যাতনামা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আসার মাধ্যম এ রাস্তাটি। বানিজ্যিক এলাকা খ্যাত চালতেতলা বাজার। ফিংড়ি বাজার, গাভা বাজার সহ একাধিক মিল, চাউল মিল, ইট ভাটা সহ বিভিন্ন ভাবে সমৃদ্ধ ঐ এলাকা। কিন্তু বর্তমান সময়ে যোগাযোগ ব্যবস্থা একে বারে ভেঙ্গে পড়েছে। প্রতিদিন পণ্যবাহী বিভিন্ন পরিবহন ঐ এলাকায় পৌছালে দীর্ঘ সময় জ্যাম সৃষ্টি হয়। এতে ভোগান্তি পেতে হয় শহরগামী যাত্রী সাধারনের প্রতিদিন কোন না কোন গাড়ী দুর্ঘটনার কবলে পড়ে ঐ স্থানে। চালতেতলা বাজার কমিটির সাধারন সম্পাদক মো: কবির হোসেন জানান, কালভাট টি বহু পুরাতন, ভেঙ্গে গিয়ে এলাকা মানুষের যাতায়াতে দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। বিশেষ করে পণ্যবাহী গাড়ী চলাচলের সময় দীর্ঘক্ষন অপেক্ষা করতে হয় রাস্তায় অবস্থানকারীদের। কালভাটটি মেরামতের জন্য একাধিকবার পৌর কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হলেও তাতে কোন কাজ হয়নি। এ বিষয়ে জানতে চাইলে পৌরসভার প্যানেল মেয়র আলহাজ্ব কাজী ফিরোজ হাসান জানান, কালভাটের সমস্যা নিয়ে আমাকে এলাকার স্থানীয়রা একাধিকবার জানিয়েছেন। বিষয় টি পৌর মেয়র সহ নির্বাহী প্রকৌশলীকে জানিয়েছি। তাতে বেশি অগ্রগামি দেখা যায়নি। তবে সা¤প্রতিক ঐ কালভাট নির্মানের জন্য টেন্ডার ও ঠিকাদার নিয়োগের জন্য টেন্ডার ও ঠিকাদার নিয়োগ সম্পন্ন হয়েছে। আশাকরি জনদুর্ভোগ আর থাকবে না। পৌর মেয়র তাসকিন আহমেদ জানান, দ্রুত সময়ের মধ্যে ঐ কালভাট নির্মানের কাজ শুরু হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2013-2022 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com