সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৯:২০ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
অসহায় মানুষের প্রতি সবাই সহনশীল থাকুন: জিএম কাদের খুলনায় ডুবে যাওয়া কার্গো জাহাজ উদ্ধার হয়নি, নিখোঁজ ২ ব্রাজিলকে সরাসরি তৈরি পোশাক নেওয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর ভরিতে সোনার দাম বাড়ল ১৭৫০ টাকা কপিলমুনিতে চলার সাথী সংগঠনের পক্ষ থেকে দোয়া ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত কালিগঞ্জে জাতীয় পাটির ইফতার মাহফিল অনুষ্টিত সম্রাট আকবরের হাত ধরে বাংলা সনের প্রবর্তন সাতক্ষীরায় কোথায় কখন ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হবে সাতক্ষীরা জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি প্রয়াত এড. আবুল হোসেন (২) মাগফিরাত কামনায় দোয়া ও ইফতার মাহফিল দেবহাটা বিশ্ব বিদ্যালয় সংগঠন দরদীর আলোকিত আয়োজন ঃ মেধাবী শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা

সিলভার জুবলী সরঃ প্রাথঃ বিদ্যালয় পরিদর্শন করলেন জেলা প্রাথঃ শিক্ষা অফিসার

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • আপডেট সময় সোমবার, ১৩ জুন, ২০২২

স্টাফ রিপোর্টার ঃ সাতক্ষীরা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ রুহুল আমীন গতকাল শহরের সিলভার জুবলী মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন করেছেন। প্রাথমিকের বাতিঘর খ্যাত জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার পাঠদান প্রত্যক্ষ করেন। নব নির্মিত ভবনের বিভিন্ন অংশ ঘুরে দেখেন এবং প্রতিটি কক্ষ ব্যবহার উপযোগী করা উপর গুরুত্বদেন। শ্রেণি কক্ষ পরিদর্শন শেষে তিনি প্রধান শিক্ষক চায়না ব্যানার্জী সহ সকল শিক্ষকের সাথে মত বিনিময় করেন। শিক্ষকরা এ সময় অতি স¤প্রতি বিদ্যালয়ে দুই শিশু শিক্ষার্থীর মাঝে গোলযোগ পরবর্তি অভিভাবকদের ভূমিকার বিষয়ে জানান জেলার সনামধন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটিতে এক অভিভাবকের সহ উক্ত অভিভাবকের অভিভাবক এসে উচ্চস্বরে কর্কস ভাষায় অনাকাঙ্খিত আচরন করেন। প্রাধনশিক্ষক চায়না ব্যানার্জীকে হুমকি প্রদান সহ গালমন্দ করেন। শিক্ষকরা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারকে আরও জানান প্রধান শিক্ষক চায়না ব্যানার্জীর নেতৃত্বে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি অনেক উচ্চতায় র্পৌছাইছে। শিক্ষকদের সাথে অনাকাঙ্খিত আচরন এবং তা শিশু শিক্ষার্থীদের সম্মুখপানে ঘটায় শিশু শিক্ষার্থীরাও আতঙ্কিত হয়ে পড়ে। প্রধান শিক্ষক জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারকে বলেন প্রধান শিক্ষক কেবলমাত্র একজন ব্যক্তি নন বা শিক্ষক নন প্রতিষ্ঠান। বিধায় প্রধান শিক্ষকের হুমকি এবং গালমন্দ প্রতিষ্ঠানের জন্য শুধুমাত্র কষ্টের নয়, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে অবমাননার বহিঃপ্রকাশ। প্রধান শিক্ষক এবং সিলভার জুবলী মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়কে নিয়ে ভিত্তিহীন, সত্যের বিপরীত প্রচার প্রচারনা করা হচ্ছে। প্রধান শিক্ষক বা শিক্ষকরা কোন অন্যায় বা ভূল করলে তার জন্য যথাযথ কর্তৃপক্ষকে জানানোর পরিবর্তে বিদ্যালয়ে এসে অসদাচরন শিষ্টাচার এবং নৈতিকতা বহিঃভভূত, শিক্ষকদের বক্তব্য জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার ধৈর্য্য সহকারে শোনেন, এবং বলেন সকলের উর্ধে আমাদের সম্মানিত শিক্ষকগন। অভিভাবক, শিক্ষক, শিক্ষার্থী একে অপরের প্রতি সম্মানবোধ, শ্রদ্ধাবোধ, পারস্পরিক সমঝোতা এবং আন্তরিকতার বিকল্প নেই। বিদ্যালয়ের সামগ্রীক পরিবেশে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার সন্তোষ প্রকাশ করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2013-2022 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com