বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ০৪:৩৩ অপরাহ্ন

হিজবুল্লাহর হামলায় ইসরাইল সেনা কর্মকর্তা নিহত

দৃষ্টিপাত ডেস্ক :
  • আপডেট সময় শনিবার, ৬ জুলাই, ২০২৪

দৃষ্টিপাত ডেস্ক ॥ দখলদার ইসরাইলি বাহিনী গাজা যুদ্ধে দৃশ্যতঃ বিপর্যস্থ। এমন কোন দিন নেই যে দিনে বা সময়ে দখলদার ইসরাইলি বাহিনী সদস্যরা ফিলিস্তিনিদের উপর হামলা করছে না, বেসামরিক ও নিরীহ ফিলিস্তিনিদের হত্যা করছে না, পক্ষান্তরে দখলদার ইসরাইলি বাহিনী কেবল হামাস যোদ্ধাদের দ্বারা নয় তারা প্রতিমুহুর্তে হামলার শিকার হচ্ছে হামাস, হিজবুল্লাহ ও হুতি যোদ্ধাদের দ্বারা। বিশেষ করে হিজবুল্লাহ যোদ্ধাদের হামলা ইসরাইলি ভূ-খন্ডকে যেমন কাঁপিয়ে তুলছে তেমনই জ্বালিয়ে দিচ্ছে। হিজবুল্লাহর ছোড়া ক্ষেপনাস্ত্র ও রকেট হামলার কবল হতে ইসরাইলের গ্রাম, শহর, নগর, বন্দর স্থাপনা এমনকি দেশটির সামরিক কমান্ড ওবাদ যাচ্ছে না। এরইমধ্যে হিজবুল্লাহর রটেক হামলায় ইসরাইলের এক উর্ধতন সেনাকর্মকর্তা নিহত হয়েছে। নিহত উক্ত সেনা কর্মকর্তার নাম ইতাই গালিয়া। ৩৮ বছর বয়সি এই সেনা কর্মকর্তা ইসরাইলি সেনা বাহিনীর ৬৭৯ তম আর্মার্ড বিগ্রেডের ৮৬৭৯তম ইউনিটের ডেপুটি কোম্পানী কমান্ডার ছিলেন। কাতার ভিত্তিক টেলিভিশন চ্যানেল আল জাজিরা জানিয়েছে গতকাল হিজবুল্লাহ যোদ্ধারা লেবাননের বিভিন্ন এলাকা হতে ইসরাইলে ভূ-খন্ডে মুহুর মুহুর রকেট হামলা পরিচালনা করে উক্ত রকেট হামলায় উক্ত ইসরাইলি সেনা কর্মকর্তারা নিহতহয়। নিহত কর্মকর্তার হত্যা বিষয়ে ইসরাইল স্বীকার করে বলেছৈ তাদের একজন সেনা কর্মকর্তাকে হত্যা করেছে হিজবুল্লাহ যোদ্ধারা। অতিসম্প্রতি ইসরাইলের হামলায় হিজবুল্লাহর শীর্ষ কমান্ডার নামে মোহাম্মদ কে হত্যার প্রতিশোধ হিসেবে হিজবুল্লাহ যোদ্ধারা উক্ত হামলার ঘটনা ঘটায় এবং ইসরাইলের সেনা কর্মকর্তাকে হত্যা করে। ইসরাইলের পক্ষ হতে হুশিয়ারি উচ্চারন করে বলেছে হিজবুল্লাহকে কঠিন পরিনতি ভোগ করতে হবে। ্অন্যদিকে ইসরাইলের হুমকি ও হুশিয়ারীন উত্তরে হিজবুল্লাহ পাল্টা হুমকিও হুশিয়ারী উচ্চারন করে বলেছে প্রয়োজনে ইসরাইলকে লন্ডভন্ড করে দেওয়া হবে। কোন ভাবেই ইসরাইলকে ছাড় দেওয়া হবে না। ইসরাইলের মন্ত্রীসভা ইতিমধ্যে হিজবুল্লাহর বিরুদ্ধে সর্বাত্মক যুদ্ধ পরিচালনার ঘোষনা দিলেও এখনও পর্যন্ত ইসরাইল হিজবুল্লাহর বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষনা করেনি বা হিজবুল্লাহর ঘাটি লেবাননে হামলা করেনি কারন হিসেবে কাতার ভিত্তিক টেলিভিশন চ্যানেল আল জাজিরা জানিয়েছে লেবাননের উপর হামলা পরিচালনা করা বাহিজবুল্লাহর উপর হামলা পরিচালনাকরার সামর্থ বা সক্ষমতা নেই আরএ কারনেই ইসরাইল এখনও পর্যন্ত লেবাননে হামলা পরিচালনা করা হতে বিরত আছে। এদিকে কাতার ও মিশরের মধ্যস্থতায় হামাস ইসরাইল যুদ্ধ বিরতি বিষয়ক আলোচনা চলছে। মিশরের রাজধানী কায়রোতে অনুষ্ঠিত উক্ত যুদ্ধ বিরতি বিষয়ক আলোচনায় ইতিমধ্যে যোগ দিয়েছে ইসরাইলি প্রতিনিধিরা। কাতার ভিত্তিক টেলিভিশন চ্যানেল আল জাজিরা জানিয়েছৈ মার্কিন যুক্তরাষ্টের প্রতিনধিরাও উক্ত যুদ্ধ বিরতি আলোচনায় অংশ নিয়েযুদ্ধ বিরতির প্রস্তাব গুলোর সমস্যা, সম্ভাবনার ইতিবাচক দিকগুলো বিশ্লেষন করছে। চ্যানেলটি জানিয়েছে হামাসের পক্ষ হতে নতুনভাবে যুদ্ধ বিরতিপ্রস্তাব না পেশকরা হয়েছে এবং উক্ত যুদ্ধবিরতি প্রস্তাবনা বিশ্লেষন করা হচ্ছে যেকোন সময়ে হামাস এবং ইসরাইল যুদ্ধবিরতি কার্যকর হতে পারে। হামাস প্রথম থেকেই বলে আসছে গাজায় স্থায়ী যুদ্ধ বিরতিই কেবল মাত্রবন্দীমুক্তি সম্ভব। এদিকে দখলদার ইসরাইলি বাহিনীগত কয়েকদিন যাবৎ উত্তর গাজা ও খান ইউনিসে নির্মম হামলা পরিচালনা করছে। দখলদার বাহিনীর হামলায় দৃশ্যতঃ গণহত্যার রুপধারন করেছে। গাজার আলোচিত রাফা শহরের সর্বত্র চলছে হামাস ইসরাইল সেনাদের মুখোমুখি যুদ্ধ। রাফা শহরের বারবার দখলদার সেনারা হামাস সদস্যদের ফাঁদে আটকা পড়ছে এবং হত্যা ও হতাহতের শিকারহচ্ছে। গাজার হামাস সদস্যলা প্রকাশ্যে দখলদার ইসরাইলি বাহিনীর বিরুদ্ধে যুদ্ধ করছে। চিকিৎসাহীনতা এবং খাদ্য ও বিশুদ্ধ পানির অভাবে গাজায় ফিলিস্তিনিরা মৃত্যুবরন করছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2013-2022 dainikdristipat.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com